আড়াইহাজারে সন্তানকে পুড়িয়ে মারল পাষণ্ড মা ও প্রেমিক
আড়াইহাজারে সন্তানকে পুড়িয়ে মারল পাষণ্ড মা ও প্রেমিক

আড়াইহাজারে সন্তানকে পুড়িয়ে মারল পাষণ্ড মা ও প্রেমিক

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা

পরকীয়া প্রেমের জের ধরে নিজ সন্তানকে পুড়িয়ে মারল শেফালি আক্তার নামে এক পাষণ্ড মা ও তার প্রেমিক। শুক্রবার ভোরে এই অমানবিক ঘটনা ঘটেছে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার উচিতপুরা ইউনিয়নের বাড়ৈপাড়া গ্রামে।


পুলিশ জানায়, শেফালির সাথে পাশের মোমেনের দীর্ঘ দিন ধরে পরকীয়া চলছে। বিষয়টি নিয়ে তার পরিবারের লোকজনের সাথে মনমালিন্য হওয়ায় নিজ সন্তানদের হত্যার পরিকল্পনা করে শেফালি ও তার প্রেমিক। শুক্রবার গভীর রাতে পাষণ্ড মা শেফালি বেগম তার প্রেমিক মোমেনকে নিয়ে ঘুমন্ত অবস্থায় তার দুই সন্তান হৃদয় ও শিহাবকে কাঁথায় পেঁচিয়ে ম্যাচের কাঠি দিয়ে আগুন দেয়। মুহূর্তের মধ্যে ঝলছে যায় নিষ্পাপ দুই সন্তানের শরীর। আশপাশের লোকজন সন্তানদের আর্তচিৎকারে বেরিয়ে আসে। কিন্তু অগ্নিদগ্ধ হৃদয় (৯) এরমধ্যে মারা যায়। আশপাশের লোকজন আরেক সন্তান অগ্নিদগ্ধ শিহাবকে (৭) উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে রেফার করেন। তার অবস্থাও আশঙ্কাজনক।


নিহত হৃদয় ওই এলাকার লিবিয়া প্রবাসী আনোয়ার হোসেনের বড় ছেলে। সে ৩৫ নম্বর বাড়ৈপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র।


পুলিশ পাষণ্ড মা শেফালি বেগমকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।


থানার ওসি এম এ হক জানান, প্রাথমিকভাবে মোমেন ও শেফালি হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে। এ দিকে নিহত স্কুলছাত্র হৃদয়ের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জের মর্গে পাঠানো হয়েছে। শেফালি ঘটনার সাথে তার জড়িত থাকার বিষয় অস্বীকার করেছে। সে জানায়, মোমেন তার ছেলেকে হত্যা করেছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.