স্ত্রীর সাথে অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যা
স্ত্রীর সাথে অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যা

স্ত্রীর সাথে অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যা

বালিয়াডাঙ্গী (ঠাকুরগাঁও) সংবাদদাতা

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে কর্মস্থলে স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস না করায় দ্ম্পত্য কলহের জের ধরে স্ত্রীর উপর অভিমান করে হাফেজ তরিকুল ইসলাম (২৬) বিষাক্ত গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা মধ্য কাদশুকা গ্রামের শহির উদ্দীনের ছেলে হাফেজ তরিকুল ইসলাম পার্শ্ববর্তী রানিশংকৈল উপজেলার একটি হাফেজিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষকতা হিসাবে যোগদান করে সেখানেই বসবাস করতেন।

কয়েকদিন আগে সে ছুটি নিয়ে বাড়িতে বেড়াতে আসে। গত রবিবার বিকেলে সে কর্মস্থলে যাওয়ার পথে কালমেঘ বাসস্ট্যান্ডে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করতে থাকলে ওই সময় তার স্ত্রী এসে তার সাথে বসবাস করার জন্য হাজির হয়।

এ সময় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বাক-বিতণ্ডা সৃষ্টি হলে হাফেজ তরিকুল ইসলাম বাড়িতে ফিরে গিয়ে বাড়ির সবার অগোচরে বিষাক্ত তিনটি গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার খরশেদ মাসুম বিল্লা শান্ত তাকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে রেফার্ড করে। সেখান থেকে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

এ ব্যাপারে বালিয়াাডঙ্গী থানার তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা এস আই আমিনুল ইসলাম জানান, স্ত্রীর উপর অভিমান করে হাফেজ তরিকুল ইসলাম বিষাক্ত ৩টি গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। এব্যাপারে বালিয়াডাঙ্গী থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয়। 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.