কলেজছাত্র রাজীবের হাত বিচ্ছিন্ন ঘটনা

দুই বাসচালকের জামিন নাকচ

আদালত প্রতিবেদক
কলেজছাত্র রাজীবের হাত বিচ্ছিন্ন করার অভিযোগের মামলায় দুই বাসচালকের জামিন নাকচ করেছেন আদালত। রাজধানীর কাওরান বাজারে বেপরোয়া দুই বাসের চাপায় তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীব হোসেনের হাত বিচ্ছিন্নের ঘটনায় করা মামলায় গ্রেফতারকৃত দুই বাস চালকের জামিন দেয়ার জন্য তাদের আইনজীবী ঢাকার সিএমএম আদালতে আবেদন করেন। গতকাল ঢাকার মহানগর হাকিম নূর নাহার ইয়াসমিন শুনানি শেষে তাদের জামিন আবেদন নাকচ করেছেন। 
যাদের জামিন আবেদন নাকচ করা হয়েছে তারা হলো বিআরটিসি বাসের চালক ওয়াহিদ ও স্বজন পরিবহন বাসের চালক মো: খোরশেদ।
উল্লেখ্য ৩ এপ্রিল দুপুরে বিআরটিসির একটি দোতলা বাসের পেছনের ফটকে দাঁড়িয়ে গন্তব্যের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন মহাখালীর সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতকের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাজীব হোসেন। বাসটি হোটেল সোনারগাঁওয়ের বিপরীতে পান্থকুঞ্জ পার্কের সামনে পৌঁছলে হঠাৎ পেছন থেকে স্বজন পরিবহনের একটি বাস বিআরটিসি বাসটির গা ঘেঁষে অতিক্রম করে। দুই বাসের প্রবল চাপে গাড়ির পেছনে দাঁড়িয়ে থাকা রাজীবের হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ওই ঘটনার পর পথচারীরা রাজীবকে পান্থপথের শমরিতা হাসপাতালে ভর্তি করেন। এরপর তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেয়া হয়। ওই ঘটনায় রাজীব হোসেনকে এক কোটি টাকা তিপূরণ দিতে বুধবার রুল জারি করেন হাইকোর্ট। একই সাথে তার চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন এবং তার কৃত্রিম হাত প্রতিস্থাপন করা হলে তার খরচও দুই বাসমালিক কর্তৃপকে বহন করতে আদেশ দেন আদালত।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.