বেসিক ব্যাংকে বিভিন্ন পদে নিয়োগ

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বেসিক ব্যাংক লিমিটেডে বিভিন্ন পদে নিয়োগের নিমিত্তে
প্যানেল প্রস্তুতির জন্য নিচের শর্তাধীনে বাংলাদেশী নাগরিকদের কাছ থেকে আবেদনপত্র আহ্বান
করা হয়েছে। আবেদনপত্র পাঠানোর শেষ তারিখ : ২০ মে ২০১৮। লিখেছেন মাহমুদা সুলতানা
পদের নাম : এসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার (আইসিটি)-সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার।
পদের সংখ্যা : ৪টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : কম্পিউটার সায়েন্স/ কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে প্রথম শ্রেণীতে বিএসসি অথবা এমএসসি ডিগ্রি এবং অন্যান্য সব পরীক্ষায় ন্যূনতম দ্বিতীয় বিভাগ/ শ্রেণী থাকলে আবেদন করা যাবে। প্রার্থীদের ডাটাবেজ প্রোগ্রামিং ও রিপোর্ট বিল্ডিংয়ে ১ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
গ্রস বেতন : ৫০০০০/- (মাসিক)।
পদের নাম : এসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার (আইসিটি)- নেটওয়ার্ক সিকিরিউটি স্পেশালিষ্ট।
পদের সংখ্যা : ১টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : কম্পিউটার সায়েন্স/ কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে প্রথম শ্রেণীতে বিএসসি অথবা এমএসসি ডিগ্রি এবং অন্যান্য সব পরীক্ষায় ন্যূনতম দ্বিতীয় বিভাগ/ শ্রেণী থাকলে আবেদন করা যাবে। প্রার্থীদের আইপি/ এমপিএলএস বেইজড নেটওয়ার্কে ১ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
গ্রস বেতন : ৫০০০০/- (মাসিক)।
পদের নাম : এসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার (আইসিটি)- ডাটাবেজ এডমিনিস্ট্রেটর।
পদের সংখ্যা : ১টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : কম্পিউটার সায়েন্স/ কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে প্রথম শ্রেণীতে বিএসসি অথবা এমএসসি ডিগ্রি এবং অন্যান্য সব পরীক্ষায় ন্যূনতম দ্বিতীয় বিভাগ/ শ্রেণী থাকলে আবেদন করা যাবে। প্রার্থীদের ডাটাবেজ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের ওরাকল লেটেস্ট ভার্সনে ১ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
গ্রস বেতন : ৫০০০০/- (মাসিক)।
উপরি উক্ত তিনটি পদের বয়সসীমা : ০১-০৪-২০১৮ তারিখে প্রার্থীর বয়স সর্বোচ্চ ৩০ বছর হতে হবে। তবে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এবং প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়স সর্বোচ্চ ৩২ বছর হতে হবে।
পদের নাম : অফিসার (আইসিটি)- ইওডি স্পেশালিস্ট।
পদের সংখ্যা : ৩টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : যেকোনো বিষয়ে চার বছরের অনার্স ডিগ্রি অথবা এমএসসি ডিগ্রি এবং যেকোনো ১টি পরীক্ষায় প্রথম বিভাগ/ শ্রেণী এবং অন্যান্য সব পরীক্ষায় ন্যূনতম দ্বিতীয় বিভাগ/ শ্রেণী থাকলে আবেদন করা যাবে। প্রার্থীদের আইটি ফিল্ড (সফটওয়্যারে) ২ বছরের অভিজ্ঞতাসহ পারফরমিং ইওডিতে ১ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
গ্রস বেতন : ৪০০০০/- (মাসিক)।
বয়সসীমা : ৩৩ বছর।
এসএসসি ও এইচএসসির ফলের ক্ষেত্রে :
এসএসসি ও এইচএসসির ফলের ক্ষেত্রে জিপিএ ৩ বা তার বেশি প্রথম বিভাগ, জিপিএ ২ থেকে জিপিএ ৩-এর কম দ্বিতীয় বিভাগ ধরা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সিজিপিএ’র ক্ষেত্রে ৪ পয়েন্টের স্কেলে সিজিপিএ ৩ বা তার বেশি প্রথম বিভাগ, সিজিপিএ ২.২৫-এর বেশি কিন্তু সিজিপিএ ৩-এর কম দ্বিতীয় বিভাগ/ শ্রেণী ধরা হবে। সিজিপিএ’র ক্ষেত্রে ৫ পয়েন্ট স্কেলে সিজিপিএ ৩.৭৫ বা তার বেশি প্রথম বিভাগ/শ্রেণী, কিন্তু সিজিপিএ ২.৮১৩ বা তার বেশি কিন্তু ৩.৭৫-এর কম দ্বিতীয় বিভাগ/শ্রেণী ধরা হবে।‘ও’ লেভেল ও ‘এ’ লেভেল পাস হলে দেশীয় সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ড থেকে ইস্যুকৃত সমমানের সার্টিফিকেট এবং বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রির ক্ষেত্রে দেশীয় সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয় বা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের ইস্যু করা সমমান সার্টিফিকেট অনুযায়ী ডিগ্রি ও ফলাফলের তথ্য দিতে হবে।
আবেদনপত্র পাঠানোর শেষ তারিখ : ২০ মে ২০১৮।
জীবনবৃত্তান্তে যেসব তথ্য থাকতে হবে ও আবেদনপত্র পাঠানোর ঠিকানা : আগ্রহী প্রার্থীদের নাম, পিতা/স্বামীর নাম, মাতার নাম, শিক্ষাগত যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, বৈবাহিক অবস্থা, বর্তমান ঠিকানা, স্থায়ী ঠিকানা, মোবাইল নম্বর, ই- মেইল, জন্মতারিখ, বয়স (০১-০৪-২০১৮ তারিখে), জাতীয়তা ইত্যাদি তথ্য সংবলিত জীবনবৃত্তান্তসহ নিজ হাতে লিখিত আবেদনপত্র মহাব্যবস্থাপক, ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি সচিবালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক, প্রধান কার্যালয়, ঢাকা বরাবরে ডাকযোগে অথবা সরাসরি পাঠাতে হবে।
নিয়োগ পরীক্ষা : প্রার্থীদের এমসিকিউ (প্রয়োজনে), লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। এমসিকিউ ও লিখিত পরীক্ষার সময়সূচি পত্রিকা ও ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। লিখিত পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে তৈরি করা হবে মেধাতালিকা। নির্বাচিত প্রার্থীদের সেখান থেকে ডাকা হবে মৌখিক পরীক্ষায়।
পরীক্ষার প্রস্তুতি : সরকারি ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষায় প্রতিযোগিতা বেশি হয়। তাই প্রস্তুতি নিতে হবে এখন থেকে। এ জন্য বিগত বছরের সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র সমাধান করলে প্রস্তুতির ক্ষেত্রে সহায়ক হবে।
মৌখিক পরীক্ষা : এমসিকিউ (প্রয়োজনে) এবং লিখিত পরীক্ষায় পাস করার পর প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে। মৌখিক পরীক্ষায় প্রার্থীর বিশ্লেষণী ক্ষমতা, দক্ষতা, উপস্থাপনা, পোশাক দেখা হয়।
আবেদনপত্রের সাথে প্রার্থীদের যেসব সনদপত্র/ কাগজপত্র সংযুক্ত করতে হবে :
১) সম্প্রতি তোলা পাসপোর্ট আকারের ৪ কপি রঙিন ছবি;
২) সব শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্র ও মার্কশিট/ ট্রান্সক্রিপ্টের কপি;
৩) অভিজ্ঞতার সনদপত্রের কপি (অভিজ্ঞতার সনদে বিজ্ঞপ্তিতে বর্ণিত শর্ত অনুযায়ী অভিজ্ঞতার বিবরণ স্পষ্টভাবে উল্লেখ থাকতে হবে);
৪) নিজ নিজ স্থায়ী ঠিকানার সমর্থনে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/পৌরসভার মেয়র/ ওয়ার্ড কমিশনার/ ওয়ার্ড কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদত্ত জাতীয়তা সনদের কপি (বিবাহিতা মহিলা প্রার্থীকে স্বামীর স্থায়ী ঠিকানার অনুকূলে ইস্যুকৃত জাতীয়তা সনদপত্রের কপি)।
জরুরি তথ্য : এ নিয়োগের ক্ষেত্রে কোটাসংক্রান্ত সরকারি নীতিমালা অনুসরণ করা হবে।

 

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.