ঢাকায় আসছেন গর্ডন গ্রিনিজ

নয়া দিগন্ত অনলাইন

ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট কিংবদন্তি গর্ডন গ্রিনিজ বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে অমর হয়ে থাকা একটি নাম। তার কোচিংয়ে ১৯৯৭ সালে আইসিসি ট্রফির শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশ। একই আসরে অর্জন করেছিল ১৯৯৯ বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা। ওটাই বাংলাদেশের প্রথম বিশ্বকাপে খেলা। সেই গর্ডন গ্রিনিজ ফের আসছেন ঢাকায়।

জানা গেছে, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের আমন্ত্রণে সাবেক শিষ্য ও সহকর্মীদের সাথে দেখা করতে পাঁচ দিনের সফরে ঢাকায় আসছেন গ্রিনিজ। আজ সন্ধ্যায় ঢাকায় পা রাখবেন এই কিংবদন্তি। আগামীকাল রাজধানীর একটি হোটেলে সাবেক শিষ্য ও সহকর্মীদের সাথে তার দেখা হবে। ১৯৯৭ সালে আইসিসি ট্রফি জয়ের মাধ্যমেই ক্রিকেটে বাংলাদেশের উত্থান। সেই আসরের কিছু সময় আগে আকরাম খান, আমিনুল ইসলাম বুলবুলদের দায়িত্ব নিয়েছিলেন তিনি। আইসিসি ট্রফি উপহার দেয়ায় বাংলাদেশের সম্মানসূচক নাগরিকত্বও পান গ্রিনিজ।

তবে গ্রিনিজের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক ছিন্ন হওয়াটা ছিল ট্র্যাজেডির মতো। ১৯৯৯ সালে যুক্তরাজ্যে প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলতে গিয়ে গর্ডন গ্রিনিজের কোচিংয়েই পাকিস্তানের মতো প্রচণ্ড শক্তিশালী দলকে হারিয়ে বিশ্বকে চমকে দেন আমিনুল, সুজন, আকরাম, নান্নু, দুর্জয়, পাইলট ও রফিকেরা। কিন্তু ৩১ মে নর্দাম্পটনে পাকিস্তানকে হারানোর রাতেই বিদায়ঘণ্টা বেজে যায় গ্রিনিজের। ৯৭ সালে আইসিসি ট্রফি বিজয়ের অন্যতম রূপকার ও নেপথ্য কারিগর হিসেবে রাজধানী ঢাকায় ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত গর্ডন দুই বছর পর বিশ্বকাপ শেষে আর ঢাকায় ফিরতে পারেননি। ইংল্যান্ডে থাকা অবস্থায় তাকে বরখাস্ত করা হয়। শেষ হয়ে যায় ক্রিকেটের জীবন্ত কিংবদন্তি গর্ডন গ্রিনিজের প্রশিক উপাখ্যান। তবে ২০০০ সালে বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টে বাংলাদেশের পাসপোর্টেই ঢাকায় এসেছিলেন গ্রিনিজ।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ব্যস্ত হয়ে কোচ খুঁজছে। রিচার্ড পাইবাস, ফিল সিমন্স, জাস্টিন ল্যাঙ্গার, গ্যারি কার্স্টেনসহ অনেকজনের নামই শোনা যাচ্ছে। কিন্তু তারা কেউ আর কোচ হচ্ছেন না, সেটাও নিশ্চিত। তাই গর্ডন গ্রিনিজের ঢাকা আসার কথা শুনে ক্রিকেটপ্রেমীরা যখন কোচ হিসেবেই ভাবছেন এই ক্যারিবিয়ান গ্রেটকে, তাদের জন্য বলা হচ্ছে- গর্ডনের আসার কারণ ক্রিকেট নয়। ভিন্ন বিষয়।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক কোচ গর্ডন গ্রিনিজ আসছেন মূলত একটি আন্তর্জাতিক গলফ প্রতিযোগিতার অতিথি হয়ে, যার অন্যতম আয়োজক গর্ডনেরই শিষ্য বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট অধিনায়ক নাইমুর রহমান দুর্জয়। তিনিই গর্ডনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.