নাজিব রাজাকের বাসা থেকে উদ্ধারকৃত অর্থ ও গহনা ভর্তি বাক্স
নাজিব রাজাকের বাসা থেকে উদ্ধারকৃত অর্থ ও গহনা ভর্তি বাক্স

এত ধন-রত্ন নাজিব রাজাকের বাসায়!

বিবিসি ও আলজাজিরা

মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের একটি আবাসিক কমপ্লেক্সে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক সংশ্লিষ্ট তিনটি অ্যাপার্টমেন্টে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা, গয়না এবং দামি হ্যান্ডব্যাগ জব্দ করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, অভিযানে তারা ২৮৪টি বাক্সভর্তি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মহিলাদের ব্যবহৃত দামি হ্যান্ডব্যাগ, ৭২ ব্যাগ ভর্তি গয়না ও দামি ঘড়ি এবং বিপুল রিংগিত ও মার্কিন ডলার জব্দ করেছে।

বুধবার রাতে নাজিবের অ্যাপার্টমেন্টে অভিযান শুরু করে পুলিশ। শুক্রবার সকালেও যা চলছিলো। এ সময় তারা খুজে পায় বিপুল এই ধন-সম্পত্তি। যার মূল্য হতে পারে ৮০ কোটি মার্কিন ডলার।

পরে এক সংবাদ সম্মেলনে মালয়েশিয়ার দুর্নীতি দমন পুলিশের প্রধান অমর সিং বলেন, ‘ঠিক কী পরিমাণ গয়না উদ্ধার করা হয়েছে তা আমি এখনই বলতে পারছি না। কারণ আমরা বাক্সেভরা গয়না জব্দ করেছি। তবে এটা বলতে পারি, পরিমাণ অনেক বেশি।’

এদিকে, কোনো ধরনের পরোয়ানা ছাড়া নাজিব পরিবারকে হেনেস্তা করতে এই অভিযান পরিচালিত হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তার আইনজীবী। তিনি বলেন, ‘যেসব জিনিস জব্দ করা হচ্ছে সেগুলো হয়তো তেমন মূল্যবান কিছু না। কিন্তু যেভাবে সেটা প্রচার করা হচ্ছে তাতে সবার মনে আমার মক্কেলকে নিয়ে নেতিবাচক ছবি তৈরি হচ্ছে।’

জাতীয় নির্বাচনে পরাজয়ের এক সপ্তাহ পর গত বুধবার রাত থেকে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, পুত্রজায়ায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন এবং নাজিব পরিবারের মালিকানায় থাকা চারটি আবাসিক ভবনে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ।

রাষ্ট্রীয় বিনিয়োগ এবং দেশের অর্থনীতিকে আরো গতিশীল করতে গড়া বিনিয়োগ তহবিল ‘ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বরহাদ’ (ওয়ানএমডিবি) থেকে নাজিব ৭০ কোটি ডলার নিজের পকেটে পুরেছেন, ২০১৫ সালে এমন অভিযোগ ওঠার পর তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়।

যদিও পরে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন কর্তৃপক্ষ নাজিবকে অভিযোগ থেকে মুক্তি দেয়। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্তত ছয়টি দেশে তার বিরুদ্ধে এখনো দুর্নীতি তদন্ত চলছে। মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই নাজিবের বিরুদ্ধে ফের দুর্নীতি তদন্ত শুরুর ঘোষণা দেন। যদিও কোনো দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন নাজিব।

ওয়ানএমডিবি কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়ে পড়ার পর নাজিবকে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছিলেন মাহাথির। কিন্তু নাজিব সরে না দাঁড়ানোয় তাকে ক্ষমতা থেকে টেনেহিঁচড়ে নামাতেই ১৫ বছর পর রাজনীতিতে ফেরেন মাহাথির। এক সময়ের চরম প্রতিদ্বন্দ্বী আনোয়ার ইব্রাহিমের সাথে জোট বেঁধে নির্বাচনে জিতে ৯২ বছর বয়সে আবারো প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন। নির্বাচনে হারের পর ছুটি কাটানোর কথা বলে স্ত্রীসহ দেশত্যাগের উদ্যোগ নিয়েছিলেন নাজিব। কিন্তু গত শনিবার তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.