‘নেতৃত্বের দুর্বলতা ও অভিভাবক সুলভ শাসনের অভাবে সমাজে অধপতন’

টঙ্গী সংবাদদাতা

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে ২০ দলীয় জোট মেয়র পদপ্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা হাসান উদ্দিন সরকার বলেছেন, নেতৃত্বের দুর্বলতা ও অভিভাবক সুলভ শাসনের অভাবে সমাজ আজ চরমভাবে অধপতন হচ্ছে। মাদকের ভয়াল আগ্রাসনে আমাদের যুব সমাজ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। হাল জামানায় মাদক ও অসামাজিক কার্যকলাপসহ সমাজ ধ্বংসের যাবতীয় উপকরণ সহজলভ্য করে দেওয়া হয়েছে। চোখের সামনে অন্যায়-অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে; অথচ কেউ প্রতিবাদ করছে না। অন্যায়-অপরাধ ও দু:শাসনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা সরাসরি জিহাদে শরিক হওয়ার চেয়েও বেশি ফজিলতের বলে তিনি মন্তব্য করেন।

শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে মুসল্লিদের অনুরোধে বক্তব্য রাখতে গিয়ে হাসান উদ্দিন সরকার এসব কথা বলেন। তিনি নগরির বোর্ড বাজার হাজী মহর খান ওয়াকফ অ্যাস্ট্রেট কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করেন। মসজিদের খতিব আব্দুর রাহিম আল-মাদানী মাহে রমজানের তাৎপর্য ও সমসাময়িক বিষয়ে বয়ান করেন। বয়ানের একপর্যায়ে তিনি হাসান উদ্দিন সরকারকে নিজের কেস পার্টনার উল্লেখ করে বলেন, হাজত খানায় আমার পিতৃতুল্য এই মুরব্বির সাথে পরিচয় হয়। তাকে জেলখানায় তাজবিহ-তাহলিল তথা ইবাদতে সময় কাটাতে দেখেছি। হাফেজ আব্দুর রহিম আল-মাদানীর আবেগঘন বক্তৃতায় মসজিদে পিনপতন নীরবতা নেমে আসে।
তিনি ফিলিস্তিনসহ সমসাময়িক মুসলিম বিশ্বের করুণ চিত্র তুলে ধরে বয়ান করেন। এদিকে জুমার জামাতের আগে হাসান উদ্দিন সরকারকে মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে কথা বলার অনুরোধ করা হয়। কিন্তু তিনি কথা বলতে রাজি হননি। অবশেষে জুমার নামাজ শেষে ঈমাম সাহেবের মোনাজাতের পর মুসল্লিরা সামনের কাতারের দিকে এগিয়ে যান এবং হাসান উদ্দিন সরকারকে বক্তৃতা দেওয়ার অনুরোধ জানান।
অবশেষে মুসল্লিদের অনুরোধে হাসান উদ্দিন সরকার সকলের দোয়া চেয়ে বক্তব্য রাখেন। বক্তব্যের শুরুতে তিনি মরহুম হাজী মহর খান ও তার পরিবারের সদস্যদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন। বক্তৃতায় তিনি বর্তমান সামাজিক অবস্থা তুলে ধরে আরো বলেন, মুখে শাসন ও অন্তরে মহব্বত থাকতে হবে। শাসন ও মহব্বত উঠে যাওয়ায় সন্তানরা বিপদগামী হচ্ছে।
বোর্ড বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে হাসান উদ্দিন সরকারের সাথে জুমার নামাজে আরো শরিক হন, গাছা সাংগঠনিক থানা বিএনপির সভাপতি মোশারফ হোসেন খান, সাধারণ সম্পাদক এম.এ হামিদ, সাবেক আহবায়ক মুজিবুর রহমান মেম্বার, জামায়াত নেতা নিয়াজ উদ্দিন মাস্টার, জাতীয় পার্টির নেতা আবুল হোসেন, বিএনপি নেতা আব্দুল আজিজ মাস্টার, ইঞ্জিনিয়ার ইদ্রিস খান, জাহাঙ্গীর হাজারী, মোশারফ হোসেন ভূইয়া, ফারুক হোসেন খান, আবুল হাসেম, ইউসুফ খান প্রমুখ ২০ দলীয় জোট নেতারা।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.