ইসরাইলের প্রধান টার্গেট তুরস্ক ও আমি, এতে প্রমাণ হয় আমরা সঠিক পথেই আছি : এরদোগান
ইসরাইলের প্রধান টার্গেট তুরস্ক ও আমি, এতে প্রমাণ হয় আমরা সঠিক পথেই আছি : এরদোগান

ইসরাইলের প্রধান টার্গেট তুরস্ক ও আমি, এতে প্রমাণ হয় আমরা সঠিক পথেই আছি : এরদোগান

নয়া দিগন্ত অনলাইন

তুরস্কে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান বলেছেন, ‘তুরস্ক সব সময় ফিলিস্তিনিদের সাথে আছে। তুরস্ক তার কূটনৈতিক শক্তি কাজে লাগিয়ে ফিলিস্তিনিদের পক্ষে কাজ করছে। ইসরাইলের প্রধান টার্গেট তুরস্ক ও আমি। এতে প্রমাণ হয় আমরা সঠিক পথেই আছি।’

ফিলিস্তিনের জেরুসালেমে ইসরাইলের গণহত্যার প্রতিবাদে পবিত্র রমজানের প্রথম দিন শুক্রবার ইস্তাম্বুলের ইয়ানিকাপি স্কয়ারে  হাজার হাজার মানুষের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত র‌্যালিতে দেয়া বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এরদোগান বলেন, জেরুসালেমকে রক্ষা করতে শুধু মুসলমানরাই নয়, গোটা বিশ্বই ব্যর্থ হয়েছে। মুসলমানরা ঐক্যবদ্ধ হলে ইসরাইল তার আগ্রাসন অব্যাহত রাখতে পারবে না।

 

তুরস্কে নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হবে আহত ফিলিস্তিনিদের : এরদোগান

প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যিপ এরদোগান বলেছেন- ইসরাইলের সেনাদের গুলিতে আহত ফিলিস্তিনিদের চিকিৎসা দেবে তুরস্ক। এ জন্য তাদের গাজা থেকে সরিয়ে তুরস্কে নিয়ে যাওয়া হবে।

সম্প্রতি আঙ্কারায় এক অনুষ্ঠানে এরদোগান বলেন, গাজায় আহতদের সরিয়ে নিয়ে তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করবে আঙ্কারা। কারণ গাজার চিকিৎসাব্যবস্থা প্রায় ভঙ্গুর অবস্থায় রয়েছে।

এর আগে এরদোগান বলেছিলেন- গাজায় ইসরাইলি সেনাবাহিনীর গুলিতে ৬০ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহতের ঘটনায় কার্যকর পদক্ষেপ নিতে না পারায় জাতিসঙ্ঘ শেষ হয়ে গেছে। জাতিসঙ্ঘ শেষ হয়ে গেছে, ভেঙে পড়েছে। ভালো বন্ধুত্ব থাকার পরও এই মুহূর্তে আমি জাতিসঙ্ঘের মহাসচিবের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছি না।

এরদোগান বলেছিলেন, জেরুসালেমকে কখনো ইসরাইলের করায়ত্ত করতে দেয়া হবে না। ফিলিস্তিনি ভাইদের লড়াইয়ে আমরা সমর্থন দিয়ে যাব। দীর্ঘদিন ধরে দখলে থাকা ভূখণ্ডে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের সীমান্তে শান্তি ও নিরাপত্তা না আসবে ততদিন সমর্থন দেয়া হবে।

এরদোগান বলেছিলেন, ইসরাইলি হামলার ঘটনায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ব্যর্থ হয়েছে। বিশ্বের অন্য কোথাও এমন হত্যাযজ্ঞ ঘটলে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় অনেক বেশি সক্রিয় হতো। এই নিপীড়নে বিশ্ব চোখ বুজে থাকলেও আমরা ইসরাইলের বিরুদ্ধে নীরব থাকব না।

 

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.