২১ নভেম্বর ২০১৮

অসি বোলাদের ওপর ফখর জামানের তাণ্ডব

ফখর জামান - ছবি : এএফপি

হারারেতে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার দেয়া ১৮৪ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে জয়ের পথে রয়েছে পাকিস্তান। রান তাড়া করতে নেমে মাত্র দুই রানের মধ্যে টপ অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যানকে হারালেও বামহাতি ওপেনার ফখর জামানের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে জয়ের পথে রয়েছে পাকিস্তান।
ফখর জামান ৪৪ বলে ৯০ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে এখনো অপরাজিত আছে। আর পাকিস্তান ১৫ ওভার শেষে সংগ্রহ করেছে ৩ উইকেটে ১৪৮ রান। জয়ের জন্য তাদের অবশিষ্ট ৬ ওভার অর্থাৎ ৩০ বলে করতে হবে ৩৭ রান। ক্রিজের অপর প্রান্তে ২৫ রানে অপরাজিত আছেন আছেন আরেক হার্ড হিটার শোয়েব মালিক।

এর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষে ব্যাট হাতে শুরুটা ভালোই করেছিল অস্ট্রেলিয়া। উদ্বোধনী জুটি ডি'অর্কি শর্ট ও অ্যারন ফিঞ্চ গড়েছিল ৯৫ রান। কিন্তু নবম ওভারে শাদাব খানের বলে ফিঞ্চের আউটের পরই বিপত্তি বাধে। অর্ধশত থেকে তিন রান দুরে থাকতেই সাজঘরে ফিরেন ফিঞ্চ। এরপর ধারাবাহিক উইকেটের পতন হয়। বেশিক্ষণ এক প্রান্ত লাগলে রাখতে পারেননি শর্ট।

৭৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে তরুণ শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে সাজঘরে ফেরেন তিনি। ৫৩ বলে সাতটি বাউন্ডারি ও চারটি ছক্কা হাকান।
এর আগে তাণ্ডব চালান সাদাব আর আমির। ম্যাক্সওয়েলকে ফিরিয়ে দ্বিতীয় উইকেট শিকার করেন সাদাব। আর আমির বিদায় করেন স্টোইনিসকে। আমির শিকার করেন দুটি উইকেট। একটি করে উইকেট ঝুলিতে পড়েন ফাহিম আশরাফ, হাসান আলি ও হাসান আলি। ৮ উইকেট হারিয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ১৮৩ রান।

আরো পড়ুন : ভারতকে হারিয়ে সিরিজে প্রত্যাবর্তন ইংল্যান্ডের

ভারতকে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজে কামব্যাক করল ইংল্যান্ড৷ ১৪৯ রান তাড়া করতে নেমে ২ বল বাকি থাকতে ম্যাচ জিতল মর্গ্যান অ্যান্ড কোম্পানি৷ তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের ফল এখন ১-১৷ রোববার ৮ জুলাই সিরিজের ফাইনাল ম্যাচ খেলা হবে নটিংহ্যামে৷

টস জিতে শুক্রবার শুরুতে বোলিং নেয় ইংল্যান্ড৷ ধোনি-কোহলিদের বিরুদ্ধে শুরুতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত যে ভুল ছিল না প্লাওয়ার প্লে’তে প্রমাণ করে দেন ব্রিটিশ পেসাররা৷ ভারতীয় ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই জ্যাক বলের বলে বাটলারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ৫ রানে ডাগআউটে ফেরেন রোহিত৷

অন্য ওপেনার ধাওয়ানের সংগ্রহ ১০৷ পঞ্চম ওভারের মধ্যেই ফিরে যান লোকেশ রাহুলও৷ গত ম্যাচের সেঞ্চুরিয়নের এদিন সংগ্রহ মাত্র ৬ রান৷ ২২/৩ থেকে রায়ানের ২৭ ও কোহলির ৪৭ রানের ইনিংসে ভর করে ১৪৮ রানের সন্মানজনক স্কোর করে ‘মেন ইন ব্লু’৷ ফিনিশার হিসেবে ২৪ বলে ধোনি করেন ৩২ রান৷ ১০ বলে ১২ রান করে স্কোরবোর্ড সচল রাখেন হার্দিক৷ ইংল্যান্ডের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক করে দুই উইকেট তুলে নেন জ্যাক বল৷ ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক ধোনি এদিন ৫০০ তম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে ফেললেন৷ সচিন-দ্রাবিড়ের পর তৃতীয় ভারতীয় হিসেবে দেশের হয়ে ৫০০টি ম্যাচ খেলার নজির গড়লেন মাহি৷

ধোনির কেরিয়ারের স্মরণীয় ম্যাচে অবশ্য জয় উপহার দিতে পারল না ‘মেন ইন ব্লু৷’ জেসন রসকে ১৫ ও জোস বাটলারকে ১৪ রান ডাগআউটে ফিরিয়ে শুরুটা ভালোই করেছিল ভারত৷ এরপর ইংল্যান্ডের ইনিংসে হাল ধরেন অ্যালেক্স হেলস৷ ডান হাতি হেলসের দাপুটে ব্যাটিংয়ের সামনে উমেশ-হার্দিকরা রান খরচ করে বসে৷ ১৪৯ রান তাড়া করতে নেমে হেলসের ৪১ বলে ৫৮ রানের ইনিংসের সুবাদে পাঁচ উইকেট সহজ জয় পায় ইংল্যান্ড৷ হেলসের ইনিংস সাজানো ছিল ৪টি চার ও ৩টি ছয় দিয়ে৷


আরো সংবাদ