১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

তিতের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানালো ব্রাজিল

ব্রাজিল
ব্রাজিলের কোচ তিতে - সংগৃহীত

রাশিয়া বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নেয় পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। বেলজিয়ামের কাছে ২-১ গোলে হেরে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ে ব্রাজিল। খেলোয়াড় ও কোচের এমন ব্যর্থতার পরও অখুশী নয় ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন। তাই কাতার বিশ্বকাপ পর্যন্ত কোচ হিসেবে তিতেকেই রাখতে চায় ব্রাজিল।

ইতোমধ্যে নিজেদের ইচ্ছার কথা তিতেকে জানিয়ে দিয়েছে ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন। কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নেয়ার পর তিতেকে এই প্রস্তাব দেয় ব্রাজিল। সেটি শুনে কিছুই বলেননি তিতে। শুধু জানিয়েছে, ‘এজন্য ভাবতে হবে। সময় লাগবে। এখন এসব বিষয় ভাবার সময় নয়। পরিবারের সাথে সময় কাটাতে চাই কিছুদিন। বিশ্বকাপের স্মৃতি ভুলতে হবে। এরপর ভবিষ্যত নিয়ে ভাবা যাবে।’

কোপা আমেরিকায় খারাপ পারফরমেন্সের কারণে দুঙ্গাকে সরিয়ে দিলে ২০১৬ সালের জুনে ব্রাজিল দলের কোচের দায়িত্ব নেন ৫৭ বছর বয়সী তিতে। তার প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট ছিল বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচ। ইকুয়েডরের বিপক্ষে ওই ম্যাচটি ৩-০ গোলে জয় পায় ব্রাজিল। এখন পর্যন্ত তিতের অধীনে ২৬ ম্যাচে ২০ জয় পেয়েছে ব্রাজিল। চারটি ড্র ও দুটি হারও রয়েছে তাদের।

 

আরো পড়ুন : 'ব্রাজিল, সময় এখন এগিয়ে যাওয়ার'

বেলজিয়ামের কাছে পরাজিত হয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছে ফেবারিট ব্রাজিল। আর এই বিদায়ের পর পরই ২০২২ বিশ্বকাপ নিয়ে এখন থেকেই ব্রাজিলকে চিন্তা করার অনুরোধ জানিয়েছেন ২০০২ বিশ্বকাপ জয়ী দলের তারকা রিভালদো। ফার্নান্দিনহোর আত্মঘাতি গোল ও কেভিন ডি ব্রুয়েনের দারুণ এক স্ট্রাইকে বেলজিয়াম ২-১ গোলে জয়ী হয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে। ব্রাজিলের পক্ষে ম্যাচের শেষের দিকে সান্তনাসূচক গোলটি করেন বদলি খেলোয়াড় রেনাটো অগাস্তো।

এখন পর্যন্ত অবশ্য তিতে কোনো ইঙ্গিত দেননি তিনি আদৌ সেলেসাওদের সাথে কোচের দায়িত্বে থাকবেন কিনা। রিভালদো অবশ্য তিতেকেই ভবিষ্যতের কোচ হিসেবে দেখতে আগ্রহী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রিভালদো বলেছেন, ব্রাজিলের এখনই ভবিষ্যতের পরিকল্পনা শুরু করে দেয়া উচিত।

ইন্সাটাগ্রামে তিনি লিখেছেন, ‘প্রথমত আমি বেলজিয়াম জাতীয় দলকে দারুণ এই জয় ও সেমিফাইনাল নিশ্চিত করার জন্য অভিনন্দন জানাতে চাই। বিশ্বকাপ এমনই। বিশেষ করে কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচগুলো যেখান থেকে সত্যিকার অর্থেই টুর্নামেন্ট শুরু হয়। বিশ্বকাপ কোপা আমেরিকা, বাছাইপর্ব কিংবা প্রীতি ম্যাচগুলো থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন। এখানে ভুল করার কোনো সুযোগ নেই। এটা ফুটবলেরই একটা অংশ, ৩২টি দলের মধ্যে যেকোন একটি দল জিতবে। আর এবারের সময়টা ব্রাজিলের ছিল না। আমি খুব ভালভাবেই উপলব্ধি করতে পারছি এই মুহূর্তে ব্রাজিলের খেলোয়াড় ও সমর্থকদের মনের অবস্থা কি। এটা তাদের জন্য অত্যন্ত দুঃখের মুহূর্ত। কিন্তু জীবন কারো জন্য থেমে থাকে না, আমি নিশ্চিত এই পরিস্থিতি ব্রাজিল শিগগিরই কাটিয়ে উঠবে। তারা অবশ্যই শক্তিশালী দল হিসেবেই ফিরে আসবে। এখন মাথা উঁচু করে ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের জন্য সবাইকে চিন্তা করতে হবে।’

রাশিয়া থেকে বিদায়ের পরে ব্রাজিলের আইকন খেলোয়াড় পেলেও জাতীয় দলকে ভবিষ্যতের ওপর মনোযোগী হওয়ার আহবান জানিয়েছেন। টুইটারে পেলে লিখেছেন, ‘জীবনে সব যাত্রাই লক্ষ্য অনুযায়ী শেষ হয় না। কিন্তু প্রতিটি যাত্রাই একেকটি অভিজ্ঞতা। ব্রাজিল, এখন সময় সামনে এগিয়ে যাওয়ার।’

 

আরো পড়ুন : বিমান বন্দর থেকে উধাও নেইমার

ফুটবল বিশ্বকাপের কোয়ার্টারফাইনাল থেকে বিদায় ঘটে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের। তাই বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার আগেই দেশে ফিরলো ব্রাজিল ফুটবল দল। বিমানবন্দরে ভিড় ছিল চোখে পড়ার মত। শেষ আট থেকে বিদায় ঘটলেও বীরের মতোই সংবর্ধনা পেল ব্রাজিল। সমর্থকদের ভালোবাসার সাথে ব্রাজিল ফুটবল সংস্থাও দলকে সংবর্ধনা দিয়েছে।

বিশ্বকাপে সাফল্য না পেয়েও এই প্রথম সংবর্ধনা পেল ব্রাজিল। পাশাপাশি এই প্রথম কোনো অসফল কোচকে তাড়া খেতে হয়নি। কোচ হিসেবে সফল তিতে, এমনটাই মনে করেন সমর্থকরা।

তবে সবার চোখকে ফাঁকি দিয়ে নিজ বাসায় ফিরেন ব্রাজিলের অধিনায়ক নেইমার। বিমান বন্দরের হল থেকে একে-একে সবাই বের হয়ে বাইরে আসলেও, বের হননি নেইমার। তাই নেইমারকে দেখতে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করেছে সমর্থকরা।

পরে রিও বিমানবন্দরের কর্মীরা জানান, ব্রাজিল দল বিমান বন্দর থেকে নেমে হলের দিকে আসলেও নেইমার আসেননি । রানওয়ে থেকেই নিজ হেলিকপ্টারে চড়ে নিজ বাড়ির পথে উড়াল দেন তিনি।


আরো সংবাদ