১৬ অক্টোবর ২০১৮

নবাবগঞ্জের ভাদুরিয়া-দাউদপুর সড়ক খানাখন্দে ভরা

নবাবগঞ্জের ভাদুরিয়া-দাউদপুর সড়কের বর্তমান অবস্থা : নয়া দিগন্ত -

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়ক সংলগ্ন ভাদুরিয়া-দাউদপুর সড়কের অনেক অংশ খানাখন্দকে ভরে গেছে। বিশেষ করে ভাদুরিয়া বাজারের চার মাথার উত্তর অংশে এবং ভাদুরিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে এ সড়কের অবস্থা বর্তমানে এতটাই শোচনীয় যে সামান্য বৃষ্টিতেই পানি জমে চলাচল অসম্ভব হয়ে পড়ে।
এ সড়কে চলাচলরত যানবাহনের চালক ও যাত্রী, পথচারী ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগের শেষ নেই। সামান্য বৃষ্টির পানিতে সড়কটি পুকুরে রূপ নেয় তখন তা পরিণত হয় মৃত্যু ফাঁদে। পানি বের হওয়ারও কোনো পথ নেই।
সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) তো বটেই মানুষের দুর্ভোগ দেখেও নজর দেননি নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরাও। ফলে দুর্ভোগের পাশাপাশি প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার কবলে পড়ছে সাধারণ মানুষ।
সরেজমিন দেখা যায়, সামান্য বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে ভাদুরিয়া-দাউদপুর সড়কের বিভিন্ন অংশ। দুর্ঘটনার ভয়ে যানবহন ধীরে ধীরে চলাচল করছে। বৃষ্টির পানিতে পথচারীদের ভাষায় পুকুরে পরিণত রাস্তার দু’ধারে যানজট দেখে স্থানীয়দের প্রশ্ন, রাস্তাটির সংস্কারের দায়িত্ব কার?
ভাদুরিয়া বাজারের আবুল কাশেম বললেন, সড়কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন বাস, ট্রাক, হলার, মাইক্রো, সিএনজি অটোসহ হাজার হাজার যানবাহন চলাচল করে। তিন বছর ধরে রাস্তাটি বেহাল দশায় পড়ে আছে। মাঝেমধ্যে সওজ বিভাগের লোকজন ভাঙাচোরা ইঁট বিছিয়ে দিয়ে কোনো রকমে রাস্তাটির অস্থায়ী মেরামতকাজ করে চলে যায়। ফলে এক সপ্তাহ যেতে-না-যেতেই আগের অবস্থার চেয়েও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে রাস্তাটি।
কয়েকজন সিএনজি অটোরিকশা চালক বলেন, সড়কটিতে লোকদেখানো মেরামত করা হয়। ফলে দুদিন যেতে-না-যেতেই আবারো একই অবস্থা। দুর্ঘটনার ঝুঁকি মাথায় নিয়েই পুকুরে পরিণত এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে হয়।
এই পথে চলাচলকারী যানবাহনের চালকেরা জানান, প্রতিদিন গাড়ি চালাতে গিয়ে ঝাঁকুনিতে কোমর ব্যথা হয়ে যায়। জরুরি ভিত্তিতে রাস্তাটি সংস্কার করার দাবি জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ।

 


আরো সংবাদ