১৬ অক্টোবর ২০১৮

মেসির সঙ্গী হতে মরিয়া পগবা

মেসির সঙ্গী হতে মরিয়া পগবা - ছবি : সংগৃহীত

যেকোনো অবস্থায় ফ্রান্স বিশ্বকাপ দলের তারকা পল পগবা ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড ছেড়ে লিওনেল মেসির সঙ্গে বার্সেনোলায় খেলতে চান। ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যমের খবর, পঁচিশ বছর বয়সী এই ফুটবলার বার্সার সঙ্গে পাঁচ বছরের চুক্তি করতে আগ্রহী। যে চুক্তির মূল্য হতে পারে প্রায় ৯ কোটি টাকা। এবং সাপ্তাহিক বেতন তিনি ম্যান ইউতে যা পান তার দ্বিগুণ পাবেন বার্সেলোনায়।

বুধবার পগবা ক্যারিংটনে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের অনুশীলনে যান নিজে গাড়ি না চালিয়ে। গাড়িতে বসে থাকার সময় তিনি ক্যামেরার মুখোমুখিও হননি। ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যমের দাবি, পগবা শুধু মাত্র ক্লাবের ম্যানেজার জোসে মোরিনহোর সঙ্গে কথা বলতেই ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে গিয়েছিলেন।

শোনা যাচ্ছে, ইংল্যান্ডের এই ক্লাবে তিনি নিজের বন্ধুদের জানিয়েছেন, আগামী দিনে মেসির সঙ্গে খেলাই তার স্বপ্ন। আর ম্যান ইউতে থাকলেও তিনি নিজের সাপ্তাহিক বেতন দাবি করেছেন প্রায় ১ কোটি ৭৭ লক্ষ টাকা। যা তাঁর এখনকার বেতনের দ্বিগুণ। পগবার বক্তব্য, ক্লাব চিলের ফরোয়ার্ড অ্যালেক্সিস স্যাঞ্চেজকে যে অর্থ দেয় অন্তত তার সমান তাঁকেও দিতে হবে।

ব্রিটিশ প্রচার মাধ্যমের খবর, আগামী সাত দিনের মধ্যে সব কিছু মিটিয়ে পোগবা চিরদিনের জন্য ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড ছেড়ে চলে যেতে চান। ফরাসি মহাতারকার হয়ে এখন বার্সেলোনা ও ম্যান ইউ ক্লাবের সঙ্গে যাবতীয় কথা বলছেন তার এজেন্ট মিনো রায়লো।

এই এজেন্ট সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘‘পলের ব্যাপারে আমি কখনোই চূড়ান্ত কিছু বলব না। আপনাদের যা জানার তা ম্যান ইউয়ের কাছ থেকেই জানতে হবে।’’ আরো খবর, পগবা স্বয়ং ম্যান ইউ সিইও এড উডওয়ার্ডকে তার ক্লাব ছাড়ার ইচ্ছের কথা জানিয়েছেন বার্তা পাঠিয়ে। ম্যান ইউ অবশ্য এই খবরের সত্যতা অস্বীকার করেছে।

এমনিতে পগবার সঙ্গে ম্যান ইউ’র চুক্তি ২০২১ সাল পর্যন্ত। তারা ফরাসি তারকাকে বিক্রি করার জন্য প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা দাবি করতে পারে। ফুটবল মহলের খবর এত টাকা বার্সেলোনা বা জুভেন্তাসের এই মুহূর্তে নেই। বার্সা অবশ্য তেমন হলে পগবার বিনিময়ে ইয়েরি মিনা ও আন্দ্রে গোমেজকে দিয়ে দিতে পারে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে রেকর্ড মূল্যে তুরিনের ক্লাব থেকে পগবাকে কিনেছিল ম্যান ইউ। সেটাই ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে জোসে মোরিনহোরও প্রথম মরসুম ছিল। ব্রাজিল ও রাশিয়া বিশ্বকাপে পোগবা যা খেলেছেন সেই ফর্ম তিনি ম্যান ইউ’তে দেখাতে পারেননি এটা ঘটনা। এমনকি তুরিনেও তিনি জুভেন্তাসের জার্সিতে অসাধারণ খেলছিলেন।

আরো পড়ুন :
অস্ট্রেলিয়ান মিডফিল্ডার আরজানিকে দলে নিলো সিটি

অস্ট্রেলিয়ান তরুণ এ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ড্যানিয়েল আরজানিকে দলে নিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। একইসাথে বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা তরুণ খেলোয়াড় হিসেবে আরজানির প্রশংসা করতে ভুল করেননি ম্যানচেস্টার সিটির পরিচালক ব্রায়ান মারউড।

ইরানের বংশোদ্ভূত ১৯ বছর বয়সী এই তরুণ অস্ট্রেলিয়ান পেশাদার লিগে মেলবোর্ন সিটির হয়ে খেলেছেন। সেই ক্লাব থেকেই ধারে তিনি সিটিতে আসছেন বলে জানা গেছে। এবারের বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে তিনি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে তিনটি ম্যাচেই খেলেছেন। বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সবচেয়ে কম বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করে আরজানি রেকর্ড গড়েছেন।

নিজ জন্মস্থান ইরানের খোরামাবাদ প্রদেশের রাস্তায় ফুটবল খেলে নিজের যোগ্যতার প্রমান দিয়েছেন আরজানি। মাত্র ছয় বছর বয়সে আরজানি বাবা-মায়ের সাথে অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমান। অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের সতীর্থ এ্যারন মুয়ের পথ ধরেই তার সিটিতে যোগ দেবার বিষয়টি নিশ্চিত হয়। মুয়ে বর্তমানে হাডার্সফিল্ড টাউনের হয়ে খেলছেন। ২০১৭ সালে প্রিমিয়ার লিগে হাডার্সফিল্ডের উন্নয়নে মুয়ের উল্লেখযোগ্য ভূমিকা ছিল।

সিটি গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রায়ান মারউড ক্লাবের ওয়েবসাইটে বলেছেন, ‘খুব কম সময়ের মধ্যে ড্যানিয়েল নিজেকে অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম সম্ভাবনাময় তরুন খেলোয়াড় হিসেবে প্রমান করেছেন। মাত্র দুই বছর আগে এভাবেই মুয়ে নিজেকে প্রমান করে প্রিমিয়ার লিগে খেলতে এসেছিলেন। এখন আরেকজন অস্ট্রেলিয়ান প্রতিভাকে পেয়ে আমরা দারুণ খুশি।’
২০১৬ সালে মেলবোর্ন সিটিতে যোগ দেন আরজানি। ২০১৭-১৮ মৌসুমে এ-লিগে নিজের যোগ্যতা দিয়েই বর্ষসেরা তরুণ ফুটবলারের পুরস্কার জয় করেন আরজানি।


আরো সংবাদ