২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

দুই বছর পর ওয়ানডে দলে ডেল স্টেইন

ডেল স্টেইন আবার মাঠে ফিরছেন রঙিন পোশাকে - ছবি : সংগ্রহ

নিজ মাঠে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শুরু হতে যাওয়া তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের জন্য শুক্রবার ঘোষিত ১৬ সদস্যের দক্ষিণ আফ্রিকা দলে ডাক পেয়েছেন ফাস্ট বোলার ডেল স্টেইন।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ইনজুরিতে ভুগছেন ৩৫ বছর বয়সী স্টেইন এবং ২০১৬ সালের অক্টোবরের পর থেকে ওয়ানডে খেলেননি।
তবে ইংল্যান্ড অনুষ্ঠিতব্য ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেলে সাদা বলের ক্যারিয়ার শেষ করতে চান বলে সম্প্রতি ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন তিনি।

কাঁধ ও পায়ের ইনজুরি কাটিয়ে গত জুলাইয়ে শ্রীলংকা সফরে দুই টেস্টের সিরিজ দিয়ে পুনরায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরেন স্টেইন।
তবে সম্প্রতি ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেটে হ্যাম্পশায়ারের হয়ে পাঁচ ম্যাচে ২০ উইকেট শিকার করে পুনরায় জাতীয় দলে ফেরার আভাস দেন তিনি।

ওয়ানডে দলে ডাক পাওয়া একমাত্র নতুন মুখ ক্রিস্টিয়ান জঙ্কার। গত ফেব্রুয়ারীতে নিজ মাঠে ভারতের বিপক্ষে তৃতীয় ও শেষ টি-২০তে নিজের অভিষেক ম্যাচে ৪৯ রান করেন তিনি। ওয়ানডে সিরিজে বিশ্রাম দেয়া হয়েছে ব্যাটসম্যান ডেভিড মিলার ও উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান কুইন্টন ডি কককে। তবে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ খেলবেন এ দুজন। টি-২০ দলে দুই নতুন মুখ ব্যাটসম্যান জিহান ক্লোয়েত ও রাশি ভ্যান ডার ডুসেনকে অন্তর্ভুক্ত করেছেন নির্বাচকরা।

নির্বাচক কমিটির প্রধান লিন্ডা জন্ডি জানান আগামী বিশ্বকাপ বিবেচনায় রেখে দল নির্বাচন করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপের দল বাছাই করতে এর পর অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান ও শ্রীলংকার বিপক্ষেও আরো ওয়ানডে সিরিজ রয়েছে।’
দুই ফর্মেটেই দলের নেতৃত্ব দেবেন ফাফ ডু প্লেসিস। তিনি খেলতে না পারলে পরবর্তীতে বদলি অধিনায়কের নাম ঘোষণা করা হবে জানিয়েছে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা।

ওয়ানডে দল: ফাফ ডু প্লেসিস(অধিনায়ক), হাশিম আমলা, জে পি ডুমিনি, রেজা হেন্ড্রিকস, ইমরান তাহির, ক্রিস্টিয়ান জঙ্কার, হেনরিখ ক্লাসেন(উইকেটরক্ষক), কেশব মহারাজ, আইডেন মার্করাম, উইয়ান মুল্ডার, লুঙ্গি এণডিগি, আন্দিল ফেলুকুয়াও, কাগিসো রাবাদা, তাবরিজ শামসি, ডেল স্টেইন, খায়া জোন্ডো।
টি-২০ দল: ফাফ ডু প্লেসিস(অধিনায়ক), জিহান ক্লোয়েত, জুনিয়র ডালা,কুইন্টন ডি কক(উইকেটরক্ষক), জে পি ডুমিনি, রবি ফ্রিলিঙ্ক, ইমরান তাহির, জঙ্কার, ক্লাসেন(উইকেটরক্ষক), ডেভিড মিলার, এনডিগি, ড্যান প্যাটারসন, ফেলুকুয়াও, শামসি, রাশি ভ্যান ডার ডুসেন।

সুচি:
সেপ্টেম্বর ৩০: ১ম ওয়ানডে, কিম্বারলি
অক্টোবর ৩: ২য় ওয়ানডে ব্লুমফন্টেইন
অক্টোব ৬: ৩য় ওয়ানডে পার্ল
অক্টোবর ৯: ১ম টি-২০, পুর্ব লন্ডন
অক্টোবর ১২: ২য় টি-২০, পচেফস্ট্রম
অক্টোবর ১৪: ৩য় টি-২০: বেনোনি।

আরো পড়ুন: ইনজামামপুত্রের সুযোগ পাওয়া নিয়ে পাকিস্তান ক্রিকেটে ঝড়

সাবেক তারকা ব্যাটসম্যান ও অধিনায়ক ইনজামাম উল হকে পুত্র ইবতাসাম উল হকের দলে সুযোগ পাওয়া নিয়ে নতুন ঝড় শুরু হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেটে। পাকিস্তান অনূর্ধ-১৯ ক্রিকেট দলে সুযোগ পেয়েছেন দেশটির জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান নির্বাচক ও সাবেক কিংবদন্তী ক্রিকেটার ইনজামাম উল হকের পুত্র ইবতাসাম উল হক।

আর এই এই দল নির্বাচনে জাতীয় দলের নির্বাচক ইনজামাম প্রভাব খাটিয়েছেন বলে খবর রটেছে। বিষয়টি কানে যাওয়ার পর বেজায় চটেছেন সাবেক অধিনায়ক। স্রেফ বলে দিয়েছেন, প্রভাব খাটিয়ে পুত্রকে দলে সুযোগ পাওয়ার অভিযোগ কেউ প্রমাণ করতে পারলে পদত্যাগ করবেন।


ঘটনার সূত্রপাত এক সাংবাদিকের সাথে পাকিস্তানের সাবেক স্পিনার আবদুল কাদিরের একটি আলোচনার মাধ্যমে। ওই সাংবাদিক দাবি করেছেন, অনূর্ধ-১৯ দল নির্বাচনের আগে দলের নির্বাচক বাসিত আলীকে ফোন করেছেন ইনজামাম উল হক। ফোন করে তার পুত্রকে দলে নিতে অনুরোধ করেছেন। ওই সাংবাদিকদের দাবি তিনি আবদুল কাদিরের কাছ থেকে জেনেছেন বিষয়টি।

বিষয়টি জানার পরই ক্ষেপেছেন ইনজামাম। বলেছেন, শীঘ্রই পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানির সাথে বৈঠক করে বিষয়টি তদন্তের দাবি জানাবেন তিনি। আর তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সত্য হলে পদত্যাগ করবেন। মিথ্যা প্রমাণিত হলে গুজব রটানো লোকদের বিরুদ্ধে মামলা করবেন।

ক্ষুব্ধ এই সাবেক তারকা বুধবার টুইটারে লিখেছেন, ‘এই অসত্য ও বিদ্বেষমূলক অভিযোগ জোরালো ভাবে প্রত্যাখান করেছি। জুনিয়র নির্বাক কমিটির কারো সাথেই যোগাযোগ হয়নি আমার। এ বিষয়ে বিন্দুমাত্র সত্যতা নেই। বিষয়টি খুব সিরিয়াসলি নিচ্ছি আমি, এ নিয়ে পিসিবি চেয়ারম্যানের সাথে মিটিং করবো এবং তাকে তদন্ত করার অনুরোধ জানাব’। এক ভিডিও বার্তায়ও এ বিষয়ে নিজের অবস্থান তুলে ধরেছেন ইনজি।

অবশ্য এই ঘটনায় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের পূর্ণ সমর্থন পাচ্ছেন ইনজি। বোর্ড জানিয়েছে, প্রধান নির্বাচকের ওপর পূর্ণ আস্থা আছে তাদের। পাকিস্তান অনূর্ধ-১৯ দলের নির্বাচক বাসিত আলীও অস্বীকার করেছেন ইনজামাম ও আবদুল কাদিরের সাথে কোন ধরনের আলাপের কথা।

ইনজামাম উল হকের বিরুদ্ধে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ গত বছরও উঠেছিলো, যখন তার ভাজিতা ইমাম উল হক জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছিলো। তখন ইনজামাম বলেছিলেন এমন কিছু কেউ প্রমাণ করতে পারবে না। আর ভাতিজা ইমাম তার পারফরম্যান্স দিয়ে প্রমাণ করেছেন জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার দাবিটা তার ছিলোই। এখন পাকিস্তান দলের নিয়মিত ওপেনারের জায়গাটা তার অনেকটা পাকা হয়ে গেছে।


আরো সংবাদ

দুর্নীতিগ্রস্থ শক্তিকে নিয়ে জাতীয় ঐক্য কেউ মেনে নিবে না:  শহীদুল ইসলাম দেশে ওয়ান ইলেভেনের ষড়যন্ত্র চলছে : নাসিম আটক ৫ জনকে আদালতে হাজির না শিবিরের উদ্বেগ এই অধিকার কে দিয়েছে আপনাদের, সরকারকে বি. চৌধুরীর প্রশ্ন কালীগঞ্জে জাতীয় পার্টির বহরে হামলা মার্কিন সিনেট ও কংগ্রেসের সামনে বিক্ষোভ করবে বিএনপি সিরাজগঞ্জে শিবির কর্মীদের মসজিদ থেকে ধরে নিয়ে প্রেট্রোলবোমার নাটক সাজানো হয়েছে : শিবির 'আমি হাউজ হাজবেন্ড, তা নিয়ে অন্য লোকের সমস্যা কেন?' যেকোন মূল্যে খালেদা জিয়াকে ক্ষমতার বাইরে রাখতে হবে : ইনু আ’লীগ ছাড়া জাতীয় ঐক্য হবে না : ওবায়দুল কাদের এশিয়া কাপ : ৩ ক্রিকেটারের শাস্তি

সকল