২০ অক্টোবর ২০১৮

মেক্সিকোয় ধেয়ে আসছে রোসা

-

গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ঝড় রোসা সোমবার রাতে মেক্সিকোর উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য বাজা ক্যালিফোর্নিয়ায় আঘাত হানতে যাচ্ছে। এখানে প্রায় সাত শ' লোকের বসবাস।

জাতীয় আবহাওয়া সার্ভিস (এসএমএন) জানায়, রোববার দুর্বল হয়ে হারিকেন থেকে গ্রীষ্মমণ্ডলীয় ঝড়ে পরিণত হওয়ার পরও রোসা ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৭৫ কিলোমিটার বেগে বইছে। স্থানীয় সময় ১টা ১৫মিনিটে এটি ঘণ্টায় ৯৫ কিলোমিটার বেগে বইছিল।

এসএমএন এর পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে ৮টার মধ্যে ঝড়টি বাজা ক্যালিফোর্নিয়ায় আঘাত হানতে পারে।

ঝড়ের প্রভাবে বন্যার কারণে ইতোমধ্যেই প্রায় ৪০ হাজার বাসিন্দার সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে এবং রাস্তাঘাটগুলো বন্ধ রয়েছে। সোমবার থেকেই কয়েকটি রাজ্যে রোসার প্রভাব পড়তে শুরু করেছে।
বাজা ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর ফ্রান্সিসকো আর্তুরো ভেগা বলেন, স্থানীয় সরকার পূর্ব উপকূলের বাজা ক্যালিফোর্নিয়া উপদ্বীপের সান ফেলিপে শহরে সর্বোচ্চ সতর্ক সংকেত রেড এলার্ট জারি করেছে।

ভেগা বলেন, ‘সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে আমরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষকে অন্যত্র চলে যাওয়ার নির্দেশ দিচ্ছি। ইতোমধ্যেই আশ্রয় শিবির স্থাপন করা হয়েছে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের বেসামরিক সুরক্ষা সংস্থার মহাপরিচালক রিকার্দো ডি লা ক্রুজ বলেছেন, রোসা’র প্রভাবে দমকা বাতাসের চেয়ে বৃষ্টিপাত হচ্ছে বেশি। ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিরও আশঙ্কা করা হচ্ছে।
জরুরি ভিত্তিতে প্রায় আট শ’ পুলিশ ও উদ্ধারকর্মীকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

মেক্সিকো নৌবাহিনীর এক হাজার চার শ’ সদস্য যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে।
সোমবার ও মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার স্কুল বন্ধ ঘোষণা করেছে। বুধবারও স্কুল বন্ধ রাখা হতে পারে।


আরো সংবাদ