২২ অক্টোবর ২০১৮

কাঁচপুরে বাসচাপায় স্কুলছাত্রী আহত, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ

অবরোধের কারণে মহাসড়কের উভয় পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। - ছবি: নয়া দিগন্ত

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে বাস চাপায় এক স্কুলছাত্রী আহত হয়েছে। আহত ছাত্রীর নাম সাদিয়া আক্তার। সে কাঁচপুর ওমর আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্রী। ছাত্রী আহতের প্রতিবাদে সহপাঠিরা ঢাক-চট্টগ্রাম মহাসড়কের একপাশ অবরোধ করে রেখেছেন। আহত সাদিয়া ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে কাঁচপুর থেকে মদনপুরগামী একটি ফিটনেসবিহীন লোকাল বাস স্কুলের সামনেই সাদিয়াকে চাপা দেয়। এতে মারাত্মক আহত হয়। একপর্যায়ে তার নিহত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়ে। এতে স্কুলের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয়রা সড়কে অগ্নিসংযোগ ও গাড়ি ভাংচুর করে সড়ক অবরোধ করে রাখে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছেন। এ রিপোর্ট লেখা বেলা সোয়া ১১টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে রাখে। আহত সাদিয়া কাঁচপুর সোনাপুর গ্রামের মিন্টু মিয়ার মেয়ে।

এলাকাবাসী জানায়, কাঁচপুর ওমর আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে সাদিয়া রাস্তা পার হচ্ছিল। এসময় কাঁচপুর থেকে মদনপুরগামী একটি লোকাল বাস (ঢাকা মেট্রো গ-১১-২১৫০) তাকে চাপা দেয়। এতে মারাত্মক আহত হয়। কিন্তু তার নিহতের খবর ছড়িয়ে পড়লে স্কুলের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসী বাসটিকে আটক করে। পরে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা বাসটিতে অগ্নিসংযোগ করে। এছাড়া মহাসড়কে চলাচলরত ১০-১২টি গাড়ি ভাংচুর করে। ঘাতক বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়।

সোনারগাঁও থানার ওসি মোরশেদ আলম জানান, বাস চালক ও হেলপারকে গ্রেফতারের আশ্বাসে অবরোধকারীদের শান্ত করার চেষ্টা চলছে।

কাঁচপুর ওমর আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু বকর সিদ্দিক জানান, সাদিয়াকে আহত করার ঘটনায় বিচার চাই। দ্রুত বাস চালক ও হেলপারকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে বিচার দাবি করছি।


আরো সংবাদ