১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

তারেক রহমান স্বপদেই থাকবেন : ফখরুল

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর - সংগৃহীত

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন,  ‘২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ের পর্যবেক্ষণে আদালতের বক্তব্যের সাথে একটি বিশেষ রাজনৈতিক দলের বক্তব্যের মিল রয়েছে, যা কোনো স্বাভাবিক ঘটনা নয়। তাই এ নিয়ে তারেক রহমানের পদত্যাগেরও কারণ নেই।’ অর্থাৎ তারেক রহমান স্বপদেই থাকবেন। 

শুক্রবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

ফখরুল আরো বলেন, ‘গ্রেনেড হামলায় সংঘটিত হত্যাকাণ্ড যদি রাষ্ট্রযন্ত্রের হয়, তাহলে বর্তমান সরকারের আমলে পিলখানা হত্যাকাণ্ড, হলি আর্টিজান এবং জঙ্গি হামলায় নিহত বিদেশি কূটনৈতিক ব্যবসায়ী, এনজিও কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, ইমাম-মুয়াজ্জিন, যাজক, পুরোহিত, ব্লগার হত্যাসহ সব হত্যাকাণ্ডের দায় ক্ষমতাসীনদের ওপরই বর্তায়। কিন্তু রায়ের পর্যবেক্ষণে এসব বিষয়ে কোনো উল্লেখ নেই।’

এ সময় ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার প্রতিফলন বলে মন্তব্য করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

‘এ রায় গ্রহণযোগ্য নয়’—এমন মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল আরো বলেন, ‘রাষ্ট্রযন্ত্রের সাহায্যে হামলা হয়েছে বলে আদালতের যে পর্যবেক্ষণ তা যুক্তিগ্রাহ্য বা গ্রহণযোগ্য নয়। মুফতি হান্নানের বেআইনি দ্বিতীয় জবানবন্দি বাদ দিলে তারেক রহমান বা অন্য অনেক ব্যক্তিকেই এই মামলায় অভিযুক্ত করা যেত না। যৌক্তিক কারণেই বলা যায়, প্রকাশ্য আদালতে মুফতি হান্নান যাতে বলতে না পারেন যে, তাকে দিয়ে জোর করে জবানবন্দিতে সক্ষ্য নেওয়া হয়েছে, সে জন্যই একটি মামলায় দ্রুততার সাথে তাকে ফাঁসি দেওয়া হয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবীর খোকন প্রমুখ।

গত ১০ অক্টোবর ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ঘোষণা হয়। রায়ে বিএনপি-জামায়াতের ১৯ নেতাকর্মীকে ফাঁসির দণ্ডাদেশ দেওয়া হয়। এ ছাড়া বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ১৯ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন আদালত।

আরো পড়ুন : বিএনপি রাজানীতি ও সন্ত্রাসকে এক করে ফেলেছে : কাদের
বাসস ১২ অক্টোবর ২০১৮, ১৫:৫৭

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কানাডা ও বাংলাদেশের আদালতের রায়ে প্রমাণ হয়েছে বিএনপি একটি সন্ত্রসী দল।

‘বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মূল পরিকল্পনাকারী, তার ফাঁসি হওয়া উচিত ছিল’ এ কথা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াও ওই হামলার দায় এড়াতে পারেন না। তারও বিচার হওয়া উচিত। বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল। তারা রাজানীতি ও সন্ত্রাসকে এক করে ফেলেছে।’


আগামী ১৪ অক্টোবর রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পদ্মা সেতুর শরীয়তপুর অংশ পর্যবেক্ষণ উপলক্ষে আজ শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে জাজিরার নাওডোবা এলাকায় নিরাপত্তা ও সার্বিক প্রস্তুতি পরিদর্শনকালে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি আসবে কি না সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি আসবে কিনা এটা তারা ভালো জানে। বিশ্বে এমন কোনো নজির আছে কিনা যেখানে বিরোধী দলকে নির্বাচনে ডেকে আনা হয়! আর আমরা কি তাদের ডেকে আনব নাকি? বিএনপি নির্বাচনের ব্যাপারে সকালে এক কথা, দুপুরে এক কথা ও সন্ধ্যায় আরেক কথা বলেন। তাদের মতের কোনো ঠিক নাই।’

রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপির নৈতিক ভিত্তি ও ভাবমূর্তি তলানিতে পৌঁছেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১৪ অক্টোবর পদ্মা সেতুর উভয় প্রান্তের কাজের অগ্রগতির ফলক উন্মোচন করবেন।

মন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তে ৫টি স্প্যান বসানো হয়েছে। মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ১টি বসেছে এবং ৫টি স্প্যান বসানোর প্রস্তুতি চলছে।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য বিএম মোজাম্মেল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীমসহ সেতু মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।


আরো সংবাদ