১৫ নভেম্বর ২০১৮

১৬ ডিসেম্বর জাতীয় বিজয় দিবসের প্যারেড হচ্ছে না

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। - সংগৃহীত

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানিয়েছেন, নির্বাচনের কারণে আগামী ১৬ ডিসেম্বর জাতীয় বিজয় দিবসে প্যারেড গ্রাউন্ডে জাতীয় কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। তবে কুচকাওয়াজ ছাড়া বিজয় দিবসের অন্যান্য সব কর্মসূচি যথা নিয়মেই পালিত হবে। নির্বাচনের কারণে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রতিবছর জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে এই প্যারেড অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার সচিবালয়ে মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে সার্বিক আইনশৃঙ্খলা-সংক্রান্ত সভা শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। সভায় মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ছাড়াও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলোর শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্যারেডে সম্মিলিত সামরিক কুচকাওয়াজে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর সদস্যরা যোগ দেন। কুচকাওয়াজের অংশ হিসেবে সালাম গ্রহণ করেন রাষ্ট্রপতি। এ সময় প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, বিচারপতি, তিন বাহিনীর প্রধান, সংসদ সদস্য, কূটনীতিক ও আমন্ত্রিত বিদেশি অতিথিরা উপস্থিত থাকেন। কুচকাওয়াজের শেষের দিকে বিমানবাহিনীর আকর্ষণীয় অ্যারোবেটিক ডিসপ্লে হয়। এ ছাড়া নানা ধরনের প্রদর্শনী হয় প্যারেডে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, নির্বাচনের কারণে এবার বিজয় দিবসে প্যারেড স্কয়ারে জাতীয় কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হবে না। তবে স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। বিজয় দিবসে সাভার স্মৃতিসৌধ সিসি ক্যামেরার আওতায় থাকবে। রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, কূটনীতিকদের জন্য সর্বোচ্চ নিরাপত্তা থাকবে। এবছর রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীকে নির্বাচনসহ বিভিন্ন কারণেই সর্বাধিক নিরাপত্তা দেওয়া হবে। তিনি বলেন, বিজয় দিবসে নিরাপত্তা জোরদার থাকবে, নির্বাচন থাকবে বিধায় এবার জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডের অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে। এ ছাড়া সার্বিকভাবে প্রতিবছর যা হয় তাই হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এটা (বিজয় দিবস) বাঙালিদের উৎসব। এখানে তেমন কিছু হবে বলে মনে করি না। তারপরও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী প্রস্তুত আছে।


আরো সংবাদ