১২ ডিসেম্বর ২০১৮

মায়ের হয়ে ক্ষমা চাইলেন সাজেদাপুত্র লাবু

-

নগরকান্দা ও সালথা উপজেলা এবং কৃষ্ণপুর ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-২ আসনে চলমান আওয়ামী লীগ আমলে সংসদ উপনেতার জ্যেষ্ঠ পুত্র আয়মন আকবর বাবলু চৌধুরী তথা মামা বাহিনীর অত্যাচার-নির্যাতনের কথা স্বীকার করে ভোটারদের নিকট মায়ের পক্ষে ক্ষমা চাইলেন এই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য ও সংসদ উপনেতা, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও আসন্ন নির্বাচনী আওয়ামী লীগের প্রার্থী সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর কনিষ্ট পুত্র শাহদাব আকবর লাবু চৌধুরী। বর্তমানে সংসদ উপনেতার স্থানীয় রাজনৈতিক প্রতিনিধি হয়ে এলাকায় কাজ করছেন লাবু।

নগরকান্দার তালমা ইউনিয়নের কদমতলী চেয়ারম্যান বাড়িতে আয়োজিত এক নির্বাচনী জনসভায় সমবেতদের সামনে তিনি এ ক্ষমা চান।

আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ নির্বাচনী সমাবেশ শুরু হয়ে বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত চলে।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগের উপকমিটির তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ও নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট জামাল হোসেন মিয়া।

এসময় লাবু চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, বিগত দিনে আমার বড় ভাইয়ের কারণে অনেক নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ অত্যাচার-নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এলাকায় ভেদাভেদ হয়ে গিয়েছিলো। অনেক নিরপরাধ মানুষ হামলা-মামলার শিকার হয়েছিলেন। আমি আজ আমার মায়ের পক্ষ থেকে এসবের জন্য আপনাদের নিকট ক্ষমা চাইছি। আগামীতে আর এমনটি হতে দেবো না।

তিনি সকল ভেদাভেদ ভুলে আসন্ন নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে তার মায়ের জন্য ভোট প্রার্থনাও করেন।

২০১৭ সালের ১৩ অক্টোবর সংসদ উপনেতার গাড়ি বহরে হামলার ঘটনার পর তিনি বড় ভাই বাবলু চৌধুরীর বিপরীতে অবস্থান নেয়ার কথা উল্লেখ করে লাবু চৌধুরী বলেন, সেদিন যখন গোলমাল লেগেছিলো তখনও আমি জামাল হোসেন মিয়াকে সবধরনের সাহায্য সহযোগিতা করে এসেছি।

উল্লেখ্য, সংসদ উপনেতার সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর উপস্থিতিতে সেদিন আয়মন আকবর বাবলু চৌধুরীর সমর্থকদের সাথে জামাল হোসেন মিয়ার সমর্থকদের সংঘর্ষের ঘটনায় গাড়ি বহরে হামলার ঘটনায় পুলিশ প্রটোকলের গাড়ি ভাংচুর ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে।

সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে অ্যাডভোকেট জামাল হোসেন মিয়া লাবু চৌধুরীকে উদ্দেশ করে বলেন, আপনার সহোদর ভাই যেই অত্যাচার আমাদের উপর চালিয়েছিলো তাতে আমাদের নাভিশ্বাস উঠে গিয়েছিলো। আর যেনো কোনো অত্যাচারী আমাদের মাঝে না আসে। আমরা দীর্ঘদিন অনেক অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করেও আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত রয়েছি। আগামীতেও আওয়ামী লীগই আমাদের একমাত্র ঠিকানা। তিনি সকলকে নৌকা মার্কায় সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানান।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন ডাঙ্গি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কালাম কাজী, লস্করদিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মশিউর রহমান মশু মিয়া, চর যশোরদী ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান পথিক, কোদালিয়া শহীদনগর ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান, রামনগর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস ফকির, তালমা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি তৈয়বুর রহমান, তালমা ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস মোল্যা প্রমুখ।

এসময় নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন, সালথা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন, সংসদ উপনেতার ব্যক্তিগত সহকারী শফিউদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।


আরো সংবাদ

ঢাকা-৪ আসনে বিএনপি প্রার্থীর বাসা লক্ষ্য করে ককটেল নিক্ষেপ নজরুল চেয়ারম্যান রিজভী সদস্যসচিব ঢাকা-১৭ আসনে বিএনপি নেতা জামান মোল্লার উদারতা অবজার্ভা ওয়ার্ল্ড ওয়াইড এডুকেশন সেন্টারের পরিচালক আমিনুর রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ১৭ ডিসেম্বর থেকে খিলগাঁও এক্সচেঞ্জের ‘৭২৫’ গ্রুপের টেলিফোন নম্বর পরিবর্তন মতাসীন দল নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে : নূর হোসাইন কাসেমী ১০ গায়েবি মামলায় বিএনপির দুই শীর্ষ নেতার জামিন অনাবাসী বাংলাদেশী প্রকৌশলীদের প্রথম সম্মেলন ফেব্রুয়ারিতে সেনাবাহিনীকে বিচারিক ক্ষমতা দিয়ে অবিলম্বে নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করুন : মুফতি রেজাউল করীম আবদুল হাই মাশরেকী ছিলেন চেতনাবোধ জাগ্রত করার কবি দুই ও পাঁচ টাকা মূল্যমানের নতুন নোট ইস্যু আজ

সকল