১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মামার বাড়ি যাওয়ার পথে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন

মামার বাড়ি যাওয়ার পথে পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন - ছবি : সংগৃহীত

টংগীবাড়ি উপজেলার দক্ষিণ চরমান্দ্রা গ্রামে পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন করা হয়েছে। এই ঘটনায় নিপীড়নকারী আব্দুল মজিদ দর্জীকে (৩৮) শনিবার বিকেলে গ্রেফতার করেছে টংগীবাড়ি থানা পুলিশ। এর আগে শনিবার (২৪ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে ওই স্কুলছাত্রী তার মামা বাড়ি থেকে নিজ বাড়ি যাওয়ার পথে রাস্তায় যৌন পীড়নের শিকার হয়। যৌন নিপীড়ক আব্দুল মজিদ দর্জী মেয়েটির সম্পর্কে নানা।

শিশুটির স্বজনরা জানান, পথিমধ্যে চরমান্দ্রা গ্রামের বোরহান উদ্দিন ফকিরের বাড়ির সামনে নির্জন রাস্তায় শিশুটির শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয় এবং জড়িয়ে ধরার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে শিশুটি কৌশলে ছুটে গিয়ে দৌড়ে তার মামা বাড়ি ফিরে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। জ্ঞান ফিরলে ঘটনা খুলে বলে সে। মামা বাড়ির লোকজন বিষয়টি টঙ্গীবাড়ি থানা পুলিশকে অবহিত করে। পরে পুলিশ আঃ মজিদকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

এদিকে শিশুটিকে টঙ্গীবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নির্যাতিতা শিশুটি শরিয়তপুরের জাজিরা উপজেলার আমিন মল্লিকের কান্দি সিডার চর গ্রামের বাসিন্দা। সে স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী। শিশুটির মামা সুরুজ জানান, তার ভাগ্নি শুক্রবার আমাদের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল। ভাগ্নিদের বাড়ি অন্য জেলায় হলেও পাশের চরের খুব কাছাকাছি। তাই একাই আসা যাওয়া করে। ওদের বাড়ি যাওয়ার পথে প্রকাশ্যে দিনের বেলায় এই দু:খজনক ঘটনাটি ঘটে।

টংগীবাড়ি থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) গোলাম রসুল রোববার সকালে জানান, এই ঘটনায় টংগীবাড়ি থানায় যৌন নিপীড়নের মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় টঙ্গীবাড়ি থানায় মামলার বাদী হয়েছেন শিশুটির বাবা নুরুজ্জামান বেপারী। রোববার১০টার মধ্যে শিশুটিকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে।


আরো সংবাদ