১৮ অক্টোবর ২০১৯

প্রধানমন্ত্রীর জন্মোৎসবের বিলবোর্ড অপসারণ, ফেসবুকে যুবলীগ নেতার তোলপাড়

গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকায় প্রধানমন্ত্রীর জন্মোৎসবের বিলবোর্ড অপসারণকে কেন্দ্র করে এক যুবলীগ নেতার ফেসবুক লাইভ প্রচারে তোলপাড় চলছে। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম জামাত-বিএনপির এজেন্ট কিনা এমন প্রশ্ন রেখে লাইভে বলা হয়, মেয়র আওয়ামী লীগের লোক হয়ে থাকলে প্রধানমন্ত্রীর জন্মোৎসবের বিলবোর্ড তুলার কথা নয়।

অপরদিকে নগর কর্তৃপক্ষ বলছে, দলীয় পরিচয়ে কতিপয় উশৃংখল লোক সরকারি কাজে বাধা দিচ্ছে এবং মেয়রকে পরিকল্পিতভাবে বিতর্কিত করার অপচেষ্টা করছে।

সোমবার বিকেলে টঙ্গী স্টেশন রোড এলাকায় অবৈধ বিলবোর্ড অপসারণে বাধা দিয়ে সিটি করপোরেশনের ২ জন কর্মচারী বাচ্চু ও শামীমকে মারধর করেছে কথিত যুবলীগ নেতাকর্মীরা।

মেয়রের ঘনিষ্ট রানা আহমেদ জানান, প্রধানমন্ত্রী নিজেই তার জন্মোৎসব পালনে নিষেধ করেছেন। এছাড়া নগর কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া সিটি করপোরেশন এলাকায় বিলবোর্ড ব্যবহার করা অবৈধ। অনেকে পূর্বানুমতি ব্যতিরেকে এবং রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে বিলবোর্ড ব্যবহার করছেন। নগর কর্তৃপক্ষ নিয়মিত রুটিন কাজ হিসেবে এসব অবৈধ বিলবোর্ড বা প্রচারপত্র অপসারণ করছে।

অনেকে অসৎ উদ্দেশ্যে ব্যক্তিগতভাবে লাভবান হওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর জন্মোৎসবের প্রিন্ট নগরির নির্ধারিত বিলবোর্ডগুলোতে স্থাপন করছে। ইতোমধ্যে যারা ব্যবসায়িক কাজে বিলবোর্ড ভাড়া নিয়েছেন তাদের প্রিন্টের ওপর অনেকে দলীয় পরিচয়ে প্রধানমন্ত্রীসহ জাতীয় নেতাদের ছবি ও নাম ব্যবহার করে ব্যক্তিগত প্রচারে লিপ্ত রয়েছেন।

এদিকে ফেসবুকে শরীফ উদ্দিন আহমেদ নামে এক যুবলীগ নেতার লাইভে দেখা যায়, যুবলীগ নেতাকর্মীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের টঙ্গী ফায়ার স্টেশনের সামনে সিটি করপোরেশনের একটি গাড়ি আটক করেছে। গাড়িতে প্রধানমন্ত্রীর জন্মোৎসবের ২/৩টি প্রিন্ট ছাড়া বাকি সব অন্যান্য বিষয়ের প্রিন্ট।

যে প্রিন্টের জন্য গাড়িটি আটক করা হয়েছে সেটি মহানগর যুবলীগের যুগ্ন আহ্বায়ক সাইফুল ইসলামের বিলবোর্ড। প্রিন্টটিতে সাইফুল ইসলামের ছবি ছাড়াও বঙ্গবন্ধু, আহসান উল্লাহ মাস্টার, প্রধানমন্ত্রী এবং স্থানীয় এমপি, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলের ছবি রয়েছে। তাতে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর জন্মোৎসব পালনের কথা বলা হয়েছে।

এব্যাপারে বক্তব্য জানার জন্য ফেসবুক লাইভ প্রচারকারী যুবলীগ নেতা শরীফ আহমেদের মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

মহানগর যুবলীগের যুগ্ন আহ্বায়ক সাইফুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, নগর কর্তৃপক্ষের কাজ ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার করা ও মশা নিধন করা। কিন্তু তারা তা না করে বিলবোর্ড অপসারণ করছে। প্রধানমন্ত্রীর জন্মোৎসবের বিলবোর্ড অপসারণের খবর পেয়ে দলীয় ছেলেরা গিয়ে বাধা দিয়েছে বলে শুনেছি। তবে তারা কাউকে মারধর করেনি।

এব্যাপারে বক্তব্য জানার জন্য গাসিক মেয়রের মোবাইলে একাধিকবার ফোন দিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি।


আরো সংবাদ

দেশী-বিদেশী পাইলটরা লেজার লাইট আতঙ্কে ‘গরু ছেড়ে মহিলাদের দিকে নজর দিন’,: মোদির প্রতি কোহিমা সুন্দরীর পরামর্শে তোলপাড় বিশাল বিমানবাহী রণতরী নির্মাণ চীনের, উদ্বেগে যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেকে শামীম ওসমানের প্রশ্ন : তোলারাম কলেজে কোথায় টর্চার সেল? জিপি ও রবিতে প্রশাসক নিয়োগ অনুমোদন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জাতীয় পতাকা অবমাননা মামলার শুনানি ৪ নভেম্বর ডিএনসিসির জরিপ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার দায়ে আটক ১ শিবচরে গণ-উন্নয়ন সমিতির কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ জবি ছাত্র ইউনিয়নের নেতৃত্বে মুত্তাকী-জাহিন তোলারাম কলেজে কোথায় টর্চার সেল? ‘দ্বীনকে বিজয়ী করতে সর্বক্ষেত্রে যোগ্যতার স্বাক্ষর রাখতে হবে’

সকল