১৯ অক্টোবর ২০১৯

মোটর মেকানিককে গলা কেটে হত্যা

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় পারভেজ ওরফে মজিবুর রহমান (১৮) নামের এক মোটর মেকানিকেল মিস্ত্রিকে জবাই করে হত্যা করে পালিয়েছে আরেক মেকানিকেল মিস্ত্রি। রাতের আঁধারে কোন এক সময়ে হত্যা করে দোকানের ভিতরে লাশ ফেলে দোকান তালা মেরে পালিয়ে যায় হত্যাকারী সুমন নামের মোটর মেকানিকেল মিস্ত্রি। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসাপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সকালে উপজেলার সাতগ্রাম ইউনিয়নের পুরিন্দা এলাকাস্থ জুয়েলের মোটর মেকানিকেলের দোকান হতে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত পারভেজ ওরফে মজিবুর ময়মনসিংহের কিশোরগঞ্জের বৈড়াদীর মাইজবাগ এলাকার তারা মিয়ার ছেলে। সে আড়াইহাজার উপজেলার পুরিন্দার সাতগ্রামের জুয়েলের মোটর মেকানিকেলের দোকানে কাজ করতো।

মোটর মেকানিকেলের দোকানের মালিক জুয়েল জানান, তার দোকানে পারভেজ ও সুমন নামের দুইজন কাজ করে। রাতের বেলা তারা দুইজন দোকানে ঘুমায়। প্রতিদিনের ন্যায় সোমবার রাতে তাদের দুইজনকে দোকানে রেখে বাড়িতে চলে যায়। মঙ্গলবার সকাল দোকানে এসে দেখি দোকান তালা বন্ধ।

পরে তাদের দুইজনের মোবাইলে ফোন করে মোবাইল বন্ধ পেয়ে বাড়ি হতে দোকানের চাবি আনতে যাই। চাবি দিয়ে দোকান খুলে দোকানের ভিতরে দেখি পারভেজের লাশ মাটিতে পড়ে রয়েছে। আর সুমন পলাতক রয়েছে। তাই বুঝতে পারলাম সুমনই পারভেজকে খুন করে পালিয়ে যায়।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, একটি মোটর সাইকেলের গ্যারেজ মিস্ত্রির দোকানে দুইজন কর্মচারী রাতে দোকানে ঘুমায়। একজন আরেকজনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জবাই করে হত্যা করে লাশ ফেলে দোকান তালা মেরে পালিয়ে যায়।

নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়। আর হত্যাকারীকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তবে মেকানিকেল মিস্ত্রি পারভেজকে কতজন মিলে খুন করেছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।


আরো সংবাদ