১৫ নভেম্বর ২০১৯

অন্তঃসত্ত্বা মা ও শিশুকন্যাকে গলা কেটে হত্যা

টাঙ্গাইল শহরের ভাল্লুককান্দী এলাকায় সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা মা ও তার চার বছরের একমাত্র কন্যাকে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, টাঙ্গাইল শহরের ব্যবসায়ী আলামিনের স্ত্রী লাকী বেগম (২২) ও তার কন্যা আলিফা (৪)। এ ঘটনায় নিহত লাকীর বাবা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

টাঙ্গাইল মডেল থানার ওসি মীর মোশাররফ হোসেন জানান, শনিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে দুর্বৃত্তরা বাড়িতে ঢুকে কুপিয়ে ও গলা কেটে অন্তঃসত্ত্বা মা ও তার শিশুকন্যাকে হত্যা করে। খবর পেয়ে পুলিশ তাদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

ময়নাতদন্ত শেষে লাশ দু’টি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পরিচিতরা এ হত্যাকাণ্ড ঘটাতে পারেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তদন্তের পর বিস্তারিত বলা যাবে।

এই হত্যা রহস্য উদঘাটন করতে পুলিশ জোর তৎপর চালাচ্ছে। এ ঘটনায় নিহত লাকীর বাবা হাসমত আলী রোববার টাঙ্গাইল মডেল থানায় অজ্ঞাতদের আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

নিহত লাকীর স্বামী আলামিন জানান, তিনি টাঙ্গাইল শহরের আসাদ মার্কেটে মোবাইল ফোন ফ্যাক্স ও বিকাশের দোকান করেন। এজন্য বাড়ি ফিরতে তার প্রায়ই মাঝরাত হতো। বাড়িতে যাওয়ার পথে তিনি স্ত্রীকে ফোন করতেন। স্ত্রী বাড়ির গেট খুলে দিতেন। শনিবার দিবাগত রাত ১২টার পর তিনি বাড়ির কাছাকাছি যাওয়ার পর স্ত্রীকে ফোন করলে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। বাড়ির সামনে গিয়ে দেখেন গেট খোলা। ঘরের ভিতরে উচ্চ শব্দে টেলিভিশন চলছে। তিনি বাড়ির ভিতরে ঢুকতেই রক্তাক্ত অবস্থায় তার স্ত্রী ও শিশুকন্যাকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসেন। পরে থানায় খবর দেয়া হয়।

নিহতের স্বজনেরা জানান, হত্যাকাণ্ডের পর ঘরের একটি ড্রয়ার খুলে প্রায় আট লাখ টাকা লুট করা হয়েছে। অন্য কোন ড্রয়ার খোলা হয়নি। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।


আরো সংবাদ