১৯ নভেম্বর ২০১৯

তরুণীকে অপহরণের পর ধর্ষণ, পিতা-পুত্র গ্রেফতার

-

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে এক তরুণীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ পিতা-পুত্রকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতদেরকে রোববার সকালে রাজবাড়ী আদালতে সোপর্দ করেছে।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, সপ্তম শ্রেণী পর্যন্ত পড়ালেখা করা ওই তরুণী (১৬) সেলাইয়ের কাজ করতেন। উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের বহরপুর দড়িপাড়া গ্রামের নুর আলমের ছেলে তৈয়ব আলী (২৫) ওই ছাত্রীকে কু-প্রস্তাব দেন। তাতে রাজি না হওয়ায় তৈয়ব আলী ওই তরুণীকে ক্ষতি করার জন্য উঠে পড়ে লাগেন। গত ১৮ জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বাড়ির সামনে ইটের রাস্তার উপর ওই তরুণী গেলে তৈয়ব আলীসহ অজ্ঞাতনামা দু'জন কাপড় দিয়ে মুখ বেঁধে মাইক্রোবাসে উঠিয়ে অপহরণ করে নিয়ে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রাখেন।

গত ২৪ জুলাই বালিয়াকান্দি থানায় ওই তরুণীর পিতা জিডি করেন। গত ১৭ অক্টোবর কৌশলে ওই তরুণী পালিয়ে বাড়িতে আসেন।

অভিভাবকদের কাছে তিনি জানান যে তাকে অপহরণ করে ঢাকায় নিয়ে বিভিন্ন বাসায় রেখে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করা হয়েছে। এব্যাপারে ওই তরুণীর পিতা শনিবার বালিয়াকান্দি থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আব্দুল কুদ্দুস রোববার সকালে অভিযান চালিয়ে বহরপুর দড়িপাড়া গ্রামের সৈয়দ আলী মাতুব্বরের ছেলে নুর আলম (৫০) ও নুর আলমের ছেলে নুরতাজকে (১৬) গ্রেফতার করে রাজবাড়ী আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আব্দুল কুদ্দুস বলেন, এ মামলার ২ আসামিকে গ্রেফতার করে রাজবাড়ী আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অপহৃতকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রধান আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

 


আরো সংবাদ