২৬ জানুয়ারি ২০২০

এলইডি লাইটের কারণে ছিনতাই কমেছে : সাঈদ খোকন

-

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেছেন, এলইডি লাইটের স্নিগ্ধ আলোয় ঢাকা আজ আলোকিত। ফলে কমে এসেছে ছিনতাই, সন্ত্রাসীসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড। অনেকেই এখন পুরনো ঢাকায় এ আলোকিত নগরী উপভোগ করতে আসেন।

বৃহস্পতিবার নবরূপে সজ্জিত আউটফল স্টাফ কোয়ার্টার পার্ক ও তেলেগু ক্লিনারদের আবাসনের জন্য নবনির্মিত পরিচ্ছন্নকর্মী নিবাসের উদ্বোধনকালে মেয়র এ কথা বলেন। এ সময় স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ হাবিবুর রহমান মোল্লা, করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলররা, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ ইমদাদুল হক ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

সাঈদ খোকন বলেন, এ এলাকায় অবস্থিত করপোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সন্তানরা যেন খেলাধূলা সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়ে সুন্দর পরিবেশে বেড়ে উঠতে পারে সে লক্ষ্যে এই পার্ক এবং পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের জীবনমানোন্নয়নের লক্ষ্যে এই পরিচ্ছন্নতাকর্মী নিবাসের উদ্বোধন করা হলো। এভাবে পুরো দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকাজুড়ে ১৯টি পার্ক এবং ১২টি খেলার মাঠ বিশ্বমানের করে গড়ে তোলা হচ্ছে। অনেকগুলো ইতোমধ্যে নগরবাসীর জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে। কয়েকটির নির্মাণকাজ শেষে উদ্বোধনের অপেক্ষাধীন রয়েছে। এসব উন্নয়নকাজ শেষে উন্মুক্ত করে দেয়া হলে পুরো দক্ষিণ ঢাকা এক অনিন্দ্য সুন্দর রূপ লাভ করবে।

ডিএসসিসির কর্মকর্তারা জানান, প্রায় ১১ কোটি টাকা ব্যয়ে ধলপুর তেলেগু পরিচ্ছন্নকর্মী নিবাস নির্মিত হয়েছে এবং আউটফল স্টাফ কোয়ার্টার পার্ক উন্নয়ন করতে খরচ হয়েছে তিন কোটি টাকা। ১২ কাঠা জায়গায় নব সজ্জিত আউটফল স্টাফ কোয়ার্টার পার্কে শিশুদের খেলার মাঠ, ওয়াকওয়ে, ছাদবাগান, পাঠাগার, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত হলরুম, বৈদ্যুতিক বাতির ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। অন্য দিকে ১৭ কাঠা জমির উপর ১১ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত তেলেগু পরিচ্ছন্নকর্মী নিবাসে প্রতিটি ফ্লাটে বেডরুম, ডাইনিং কাম ড্রয়িং রুম, রান্নাঘর, টয়লেট, বারান্দা ইত্যাদি সুবিধাসংবলিত ৯০টি ফ্ল্যাট, প্রতিটি ফ্ল্যাটের জন্য পৃথক পৃথক বৈদ্যুতিক মিটার, সোলার সিস্টেম, পয়নিষ্কাশন ব্যবস্থা, বৈদ্যুতিক সাব স্টেশন, সীমানা প্রাচীর, ওয়াকওয়ে, প্রবেশ ও বহিঃগমন গেটের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।


আরো সংবাদ