২৫ জানুয়ারি ২০২০

সোনারগাঁওয়ে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে আ’লীগ ও জাপার নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

সোনারগাঁওয়ে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে আ’লীগ ও জাপার নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া - ছবি : সংগ্রহ

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে মাইকে দেরিতে নাম ঘোষণাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির নেতা-কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। সোমবার সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটলেও কেউ গুরুতরভাবে হতাহত হননি। পরে বিষয়টি পুলিশ ও এমপি খোকার হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

জানা যায়, বিজয় দিবস উপলক্ষে সোমবার সকালে শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে কুচকাআওয়াজের আয়োজন করে সোনারগাঁও উপজেলা প্রশাসন। এই অনুষ্ঠান সকাল ৯টায় শুরু হয়। এসময় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্ধীরা কুচকাওয়াজে অংশ নেয়। এসময় বিজয় মঞ্চে দাঁড়িয়ে কুচকাআওয়াজে অংশগ্রহণকারীদের সালাম গ্রহণ করেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা, সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের চেয়ারমান মো. মোশারফ হোসেন, সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রকিবুর রহমান খাঁন ও সোনারগাঁও থানার ওসি মনিরুজ্জামান।

এদিকে কুচকাআওয়াজ অনুষ্ঠানে সোনারগাঁও আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম, মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু, সোনারগাঁও উপজেলা সাধারণ যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু, সাধারণ সম্পাদক আলী হায়দার নেতাকর্মীদের নিয়ে মাঠে প্রবেশ করে মঞ্চে বসেন। এসময় মাইকে তাদের আগমনের বিষয়টি ঘোষণার জন্য সোনারগাঁ উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ও অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ইয়াছিনুল হাবিবকে অনুরোধ করেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। নাম ঘোষণা করতে সঞ্চালক যুব উন্নয়র কর্মকর্তা ও ইয়াছিনুল হাবিব তাদের নাম বলতে গড়িমসি করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম সঞ্চালককে নাম ঘোষণা না করার কারণ জানতে চান। ওই সময়ে স্ট্যাজে বসে থাকা কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির নেতা আজিজুল ইসলাম বাদল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের কথার প্রতিবাদ করেন।

এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে শুরু হয় বাগবিতন্ডা। এর জের ধরে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির সমর্থকদের মধ্যে শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা। এসময় দৌড়াদৌড়ি করতে গিয়ে কেউ কেউ সামান্য আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। তবে কেউ না প্রকাশ করতে রাজি হননি। পরে নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা ও সোনারগাঁও থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে শান্ত হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই জানান, সঞ্চালক তার মনগড়া মতো সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি কোনো নিয়মনীতি তোয়াক্কা করেননি। অনেককেই সঞ্চালক এড়িয়ে গেছেন। এ অপ্রতিকর ঘটনার জন্য সঞ্চালকই দায়ী।
অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ও উপজেলা যুব উন্নয়র কর্মকর্তা ইয়াছিনুল হাবিব বলেন, আমি অনুষ্ঠানে কুচকাআওয়াজে স্কুল শিক্ষার্থীদের না ঘোষণায় ব্যস্ত থাকায় তাদের নাম ঘোষণা করতে দেরি হয়েছে।

সোনারগাঁও থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির জানান, নেতাকর্মীদের ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে।
সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.রকিবুর রহমান খাঁন জানান, ভুল বোঝাবুঝিতে এ অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। এমপি মহোদয়ের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়েছে।


আরো সংবাদ

পাইলটকে দেখে নেয়ার হুমকি বিমানযাত্রীর আশুলিয়ায় ৩ তলা ভবনের ছাদ থেকে ফেলে কর্মচারীকে হত্যা চকবাজারে তাপসের পক্ষে প্রচারণা আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অ্যাকাউন্টিংয়ের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ : পরিকল্পনামন্ত্রী দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক নিয়ে ইকুয়েডরের ভাইস মিনিস্টারের সাথে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আলোচনা সিটি নির্বাচনে আ’লীগ প্রার্থীকে ইসলামী গণতান্ত্রিক পার্টির সমর্থন সন্ত্রাস-দুর্নীতিমুক্ত এলাকা গড়তে চান মুফতি আতাউর ঢাকাবাসীর পিঠা ও বাকরখানী উৎসব অনুষ্ঠিত বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থীর বাড়ি ও ক্যাম্পে আ’লীগ প্রার্থীর হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ভালো আর্থিক প্রতিবেদনই দিতে পারে ভালো আইপিওর নিশ্চয়তা বেতন বৈষম্য নিরসনসহ ৮ দফা দাবি সরকারি চাকুরেদের

সকল