২২ নভেম্বর ২০১৯

প্রধানমন্ত্রী দিল্লী পৌঁছেছেন

চারদিনের সরকারি সফরে ভারতের দিল্লী পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী ও তার সফর সঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট আজ বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৮টায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে। সকাল পৌনে ১০টায় (স্থানীয় সময়) বিমানটি নয়াদিল্লীর পালাম এয়ারফোর্স স্টেশনে অবতরণ করে। সেখানে প্রধানমন্ত্রীকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়।

এ সফরে প্রতিবেশী দুদেশের সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্ক আরো জোরদারে ১৮টি দ্বিপাক্ষিক চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হওয়ার কথা রয়েছে।

সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাথে দ্বিপক্ষীয় আলোচনা দিল্লীতে অনুষ্ঠিত হবে ৫ অক্টোবর। একই দিন তিনি ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সাথেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) ইন্ডিয়ান ইকোনমিক সামিটে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ যোগ দিবেন। নয়া দিল্লীতে আগামী ৩-৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এ সম্মেলনে ৪০টি দেশের ৮০০-এরও বেশি নেতা অংশ নেবেন।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রী ৩ অক্টোবর বাংলাদেশের ওপর ডব্লিউইএফের ‘কান্ট্রি স্ট্র্যাটেজি ডায়ালগে’ যোগ দেবেন এবং ৪ অক্টোবর ডব্লিউইএফ সমাপনী আলোচনায়ও অংশ নেবেন।

সফরকালে হোটেল তাজ মহলে অবস্থান করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) বাংলাদেশ হাইকমিশনের মৈত্রী হলে এক সংবর্ধনা এবং বাংলাদেশ হাউসে তার সম্মানে আয়োজিত নৈশভোজে অংশ নেবেন। বাংলাদেশের হাইকমিশনার এ নৈশভোজের আয়োজন করবেন।

শুক্রবার (৪ অক্টোবর), প্রধানমন্ত্রী আইটিসি মহুয়াতে ভারত-বাংলাদেশ বিজনেস ফোরামের (আইবিবিএফ) নির্বাচিত সিইও ও শীর্ষ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠক ও মতবিনিময় করবেন এবং ডব্লিউইএফ সমাপনী আলোচনায়ও অংশ নেবেন। ভারত সফররত সিঙ্গপুরের উপ-প্রধানমন্ত্রী হেঙ সোয়ে কীট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

শনিবার (৫ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১১টায় ঐতিহাসিক হায়দ্রাবাদ হাউজে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় আলোচনা করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। দুপুর দেড়টায় মধ্যাহ্ন ভোজ করবেন এবং বিকালে রাষ্ট্রপতি ভবনে ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সাথে সাক্ষাৎ করবেন।

একই দিনে কয়েকটি বিনিময় চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হবে এবং দুই প্রধানমন্ত্রী হায়দ্রাবাদ হাউজ থেকে যৌথভাবে কয়েকটি প্রকল্প উদ্বোধন করবেন।

পরের দিন রোববার (৬ অক্টোবর) সকালে, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করবেন।

এছাড়া ভারতের কংগ্রেস পার্টির প্রধান সোনিয়া গান্ধী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্মের ওপর চলচ্চিত্র নির্মাণের দায়িত্ব পাওয়া ভারতের বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক শ্যাম বেনেগা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সাথে আলাদাভাবে সাক্ষাৎ করবেন।

ওই দিনই প্রধানমন্ত্রী রাত ১১টায় বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এসে পৌঁছাবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।

সূত্র : ইউএনবি


আরো সংবাদ

দেশে কিছু ঘটলেই তার ওপর ভর করে বিএনপি : কাদের সাউথ এশিয়ান ল’ ইয়ার্স ফোরামের সুপ্রিম কোর্ট চাপ্টারের পরিচিতি সভা শ্রমিক ইউনিয়ন চাঁদা তুলে আঙুল ফুলে কলাগাছ ইলিয়াস কাঞ্চনের বিরুদ্ধে বিদ্বেষমূলক প্রচারণায় আসকের নিন্দা সোনারগাঁওয়ে শুটারগানসহ ১ ব্যক্তি আটক রাজধানীতে যুবলীগ নেতাকে তুলে নেয়ার অভিযোগ যৌন হয়রানির অভিযোগে টেনিস ফেডারেশনের সেক্রেটারি বহিষ্কার খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য প্রয়োজন ‘ডু অর ডাই’ আন্দোলন : গয়েশ্বর রায় পূবাইলে তারেক রহমানের জন্মদিন উদযাপিত চার জেলার ৮ কারখানাকে জরিমানা পরিবেশ অধিদফতরের দি স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন ঢাকার ২০১৯ সালের বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত

সকল