১৯ আগস্ট ২০১৯

গ্রামীণ-রবির ব্যান্ডউইথ কমানোর নির্দেশ

বিটিআরসির দাবি করা বকেয়া অর্থ পরিশোধ না করায় গ্রামীণফোন ও রবির ব্যান্ডউইথ ক্যাপাসিটি আংশিকভাবে কমিয়ে আনার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। গ্রামীণফোনের ৩০ শতাংশ ব্যান্ডউইথ আর রবির ১৫ শতাংশ ব্যান্ডউইথ কমানোর জন্য আইআইজি প্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনের জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন খান। 

সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে এই আদেশের কপি পাওয়ার পর থেকেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে হবে বলে তিনি জানান। ব্যান্ডউইথ কমানোর ফলে সংস্থা দুটির ইন্টারনেট সেবার গতি কমে যেতে পারে সংশ্লিষ্টরা বলছেন। এর আগে বকেয়া হিসাবে গ্রামীণফোনকে ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা আর রবিকে ৮৬৭ কোটি ২৪ লাখ টাকা পরিশোধ করার নির্দেশ দিয়েছিল বিটিআরসি। তবে ওই পাওনা 'আইনগতভাবে ভিত্তিহীন' বলে দাবি করেছে গ্রামীণফোন। দাবিকৃত বকেয়া পরিশোধ না করার কারণে গ্রামীণফোন ও রবির ব্যান্ডউইথ কমানোর নির্দেশ দিয়েছে বিটিআরসি

উল্লেখ্য, গত ২রা এপ্রিল গ্রামীণফোনকে একটি নোটিশের মাধ্যমে বিটিআরসিকে ৮ হাজার ৪৯৪ কোটি ১ লাখ টাকা আর জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে ৪ হাজার ৮৫ কোটি ৯৪ লাখ টাকা প্রদান করার নির্দেশ দেয় বিটিআরসি।

বিটিআরসির নিয়োগ করা একটি অডিট ফার্ম ১৯৯৭ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত সময়ে এই বকেয়া তৈরি হয়েছে বলে প্রতিবেদন দেয়।

একই সঙ্গে রবি আজিয়াটা লিমিটেডের কাছে অডিটের মাধ্যমে গত ১৯ বছরে ৮৬৭ কোটি ২৪ লাখ টাকা বকেয়া প্রাপ্তি হয়েছে বলে দাবি করে সংস্থাটি। তবে রবির দাবি, হিসাব নিরীক্ষকরা যেসব কারণে বকেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন, তা এখনও বিচারাধীন রয়েছে।


আরো সংবাদ