১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

বিশেষ সুবিধায় খেলাপি ঋণ নবায়ন আবেদনের সময় বাড়ছে

-

উচ্চ আদালতের আদেশের পর বিশেষ সুবিধায় খেলাপি ঋণ নবায়নের আবেদনের সময় আরো ৩০ দিন পাচ্ছেন ঋণখেলাপিরা। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে সার্কুলার লেটার জারি হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।

জানা গেছে, মাত্র দুই শতাংশ ডাউন পেমেন্ট দিয়ে ১০ বছরের জন্য খেলাপি ঋণ নবায়ন করতে আবেদনের সময়সীমা গতকাল শেষ হয়েছে। কিন্তু সরকারি ব্যাংক বাদে বেসরকারি ব্যাংকগুলোতে বিশেষ সুবিধায় ঋণ নবায়নের তেমন আবেদন পড়েনি। বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানিয়েছে, সরকারি পাঁচ ব্যাংকেই বেশি মাত্রায় বিশেষ নীতিমালায় খেলাপি ঋণ নবায়নের আবেদন পড়ছে। পূর্বনির্ধারিত সময়সীমা অনুযায়ী গতকাল শেষ দিন হওয়ায় গতকাল পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন হাজার আবেদন পড়েছে সরকারি এ পাঁচ ব্যাংকে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আবেদন পড়েছে সোনালী ও জনতা ব্যাংকে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানিয়েছে, গতকাল ২ শতাংশ ডাউন পেমেন্টের মাধ্যমে ঋণ নবায়নের সুবিধাভোগীরা নতুন করে ঋণ সুবিধা নিতে পারবেন না বলে হাইকোর্টের আদেশের মেয়াদ আরো এক মাস অথবা এ বিষয়ে জারি করা রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এ সংক্রান্ত রুল শুনানিকালে গতকাল রোববার বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো: খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আবেদনকারীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার শামীম খালেদ ও মো: মুনীরুজ্জামান।

জানা গেছে, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই বলেছিলেন ব্যাংকিং খাতে এক টাকাও খেলাপি ঋণ বাড়বে না। কিভাবে খেলাপি ঋণের লাগাম টেনে ধরা যায় সে জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছিল। ওই কমিটির সুপারিশে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে গত ১৬ মে ‘ঋণ পুনঃতফসিল ও এককালীন এক্সিট সংক্রান্ত বিশেষ নীতিমালা’ শিরোনামে একটি সার্কুলার জারি করা হয়। ওই সার্কুলারে যেকোনো অঙ্কের ঋণখেলাপিদের দুই শতাংশ ডাউন পেমেন্ট দিয়ে এক বছরের গ্রেস পিরিয়ড দিয়ে ১০ বছরের জন্য ঋণ নবায়নের সুযোগ দেয়া হয়। ওই সময় বলা হয়েছিল, আগ্রহীদের সার্কুলার জারির ৯০ দিনের মধ্যে এ সুবিধা পেতে আবেদন করতে হবে।

কিন্তু উচ্চ আদালতে রিট করায় এটি কার্যকরের ওপর প্রথমে স্থগিত করা হয়। পরবর্তীতে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে গত ৮ আগস্ট এক সার্কুলার দিয়ে বলা হয়, এ বিশেষ সুবিধা পেতে ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন গ্রাহকরা।

কিন্তু উচ্চ আদালতে আবারো এ বিষয়ে রিট করায় গত ৩ সেপ্টেম্বর আবেদনের সময়সীমা বাড়িয়ে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত বৃদ্ধি করে বাংলাদেশ ব্যাংক, যা গতকাল শেষ হয়েছে।

এ বিষয়ে ওই দিন বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে জারিকৃত এক সার্কুলার লেটারে বলা হয়, ২৯ আগস্ট উচ্চ আদালতের আদেশের আলোকে আবেদনের সময়সীমা বাড়ানো হয়। তবে, প্রদত্ত আদেশ অনুযায়ী এ বিশেষ নীতিমালার আওতায় সুবিধাপ্রাপ্ত ঋণগ্রহীতাদের অনুকূলে কোনো নতুন ঋণ সুবিধা প্রদান করা যাবে না।

গতকাল উচ্চ আদালত থেকে নতুন করে আদেশ দেয়ার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, উচ্চ আদালতের আদেশ অমান্য করার সুযোগ বাংলাদেশ ব্যাংকের নেই। তাই গতকাল উচ্চ আদালত থেকে যে আদেশ দেয়া হয়েছে ওই আদেশ পরিপালনের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে এ বিষয়ে সার্কুলার লেটার জারি করা হবে। অর্থাৎ বিশেষ সুবিধায় ঋণ নবায়নের আবেদনের সময়সীমা আরো এক মাস বাড়ানো হবে।

দেখুন:

আরো সংবাদ