১২ ডিসেম্বর ২০১৯

লবণের গুজব প্রতিরোধে মসজিদে মসজিদে মাইকিং

-

লবণের দাম বৃদ্ধির গুজবে বিভ্রান্ত না হতে দেশের বিভিন্ন এলাকায় মহল্লার মসজিদে মসজিদে মাইকিং করা হচ্ছে। লবণের দাম বাড়েনি এবং বেশি দামে লবণ কিনতে বা বিক্রি করতেও ঘোষণা দিয়ে বারণ করা হচ্ছে মসজিদের মাইকে।

সন্ধ্যায় ঢাকার অদূরে আশুলিয়ার বিভিন্ন গ্রামের মসজিদে ঘোষণা দেয়া হয়েছে, ‘আপনারা বেশি দামে লবণ কিনবেন না, দোকানীরাও বেশি দামে বিক্রি করবেন না’।

আশুলিয়ার গুমাইল গ্রামের কেন্দ্রীয় মসজিদে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার পর মাইকে ঘোষণা দেয়া হয়- কোনো ক্রেতা যাতে বেশি দামে লবণ না কেনেন এবং কোনো দোকানীও যাতে বেশি দামে লবণ বিক্রি না করেন।

গুমাইল কেন্দ্রীয় মসজিদের পেশ ইমাম ও খতিব শওকত হোসেন নয়া দিগন্তকে জানান, বিকেল থেকেই অনেকে গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে দোকানে দোকানে ছোটেন লবণ কেনার জন্য। অনেকের বাসাবাড়িতে লবণ থাকার পরেও তারা দাম বাড়বে এমন খবরে বিভ্রান্ত হয়ে বেশি করে লবণ কিনে মজুদ করার চেষ্টা করেন। পরে টিভি ও অন্যান্য প্রচার মাধ্যমে জানা যায়, লবণের মূল্য বৃদ্ধির এমন সংবাদ ভূয়া। তাই তিনি জনগণকে সচেতন করতেই মাইকে এই ঘোষণা দেন।

এদিকে সন্ধ্যায় আশুলিয়া থানার পক্ষ থেকে পুলিশের কয়েকটি টিম বিভিন্ন বাজার পরিবদর্শন করেছে। সন্ধ্যায় বাংলাবাজার, বাইপাইল, জামগড়া, জিরানি বাজারসহ বেশ কিছু বাজার মনিটরিং করেছে সাভারের স্থানীয় প্রশাসন। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায়ও পুলিশের তৎপরতা দেখা গেছে। ঢাকার বাইরে বিভিন্ন অঞ্চল থেকে বেশি দামে লবণ বিক্রির দায়ে ভাম্যমাণ আদালত কর্তৃক বিক্রেতাদের শাস্তি দেয়ার খবর পাওয়া গেছে।

উল্লেখ্য, আমঙ্গলবার দুপুরের পর থেকেই সারাদেশে লবণের দাম বাড়বে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই ঘরে লবণ থাকার পরেও নতুন করে দোকানে গিয়ে অতিরিক্ত আরো ৫-৬ কেজি করে লবণ কিনে এনে রাখেন। শুধু গ্রাম নয় শহরেও এ চিত্র চোখে পড়ে।


আরো সংবাদ