১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

জাবিতে শিক্ষকের উস্কানিতে হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যানের উস্কানিতে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলন লিখিত বক্তব্যের মাধ্যমে এ অভিযোগ তুলে ধরেন সিএসই বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক এমদাদুল ইসলাম।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন,‘তথ্য প্রযুক্তির যুগে বাংলাদশে সরকারের ভিশন-২০২১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এই বিভাগ একাগ্রতার সাথে সাথে কাজ করে যাচ্ছে। এমতাবস্থায় সম্প্রতি পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আমীর হোসনে ভূঁইয়ার উস্কানিতে ওই বিভাগের শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল জাফর (৪৭ব্যাচ), আবীর (৪৭ ব্যাচ), সোহল (৪৭ব্যাচ), রাসেল (৪৭ব্যাচ)সহ নাম না জানা আরো ৩০/৪০ জন সশস্ত্র শিক্ষার্থী সন্ত্রাসী কায়দায় সিএসই বিভাগের ৩য় তলায় অনুপ্রবেশ করে এবং ফটকে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র দিয়ে আক্রমণ করে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করে। যা বিভাগের সিসিটিভি ক্যামেরায় সংরক্ষিত আছে। একপর্যায়ে তারা ফটকের তালা ভেঙ্গে সিএসই বিভাগে প্রবেশ করে এবং অশোভন উল্লাস করতে থাকে। এসময় তারা সিএসই বিভাগের মোবাইল এপ্লিকেশন ডেভেলপমন্টে এন্ড টেস্টিং ল্যাব, শিক্ষক রুম, অগ্ননির্বাপক যন্ত্র, নোটিশ র্বোডসহ বিভিন্ন জিনিসের ক্ষতি সাধনের চেষ্টা করে।

বিভাগের চেয়ারম্যান আরো বলেন,‘ঘটনার আকস্মিকতায় বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ চরম নিরারপত্তাহীনতায় ভোগে। পরর্বতীতে প্রশাসনকে বিষয়টি অবহতি করা হলে, প্রশাসনরে পক্ষ থকে প্রো-ভিসি(শিক্ষা) অধ্যাপক নূরুল আলম, প্রো-ভিসি(প্রশাসন) অধ্যাপক আমির হোসেন ও প্রক্টোরয়িাল বডির হস্তক্ষেপে ভবনের ৩য় তলার সিএসই অংশ সিলগালা করে দেয়া হয়। যার ফলে বিভাগের একাডেমিক র্কাযক্রম বিঘ্নিত হয়। ফলশ্রুতিতে বুধবার ১ম র্পব ১ম সেমিস্টার-২০১৯ এর একটি গ্রুপের ইলকেট্রনিক ল্যাব পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলেও ৩য় তলায় কম্পিউটার ল্যাব এবং শিক্ষকদের রুম কক্ষ অবরুদ্ধ থাকায় অপর গ্রুপের নির্ধারিত ল্যাব পরীক্ষাটি নেয়া সম্ভব হয়নি এবং একই পরিস্থিতি বৃহস্পতিবারও বিরাজ করেছে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো বলা হয়,‘পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আমীর হোসনে ভূঁইয়া ভবনের নকশা পরর্বিতন করে শিক্ষকদের রুমের আকৃতি বর্ধিত করে। নির্ধারিত সেমিনার লাইব্রেরীর জায়গায় সভাপতির জন্য ঢাউস আকৃতরি একটি কক্ষ বানায় এবং নকশায় বিভাগীয় সভাপতির কক্ষ ব্যক্তিগত কক্ষ হিসেবে ব্যবহার করেন। অধ্যাপক আমীর হোসনে ভূঁইয়া তাঁর বিভাগের সেমিনার লাইব্রেরীতে কৃত্রিম সংকট তৈরী করে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের উস্কে দিয়ে সিএসই বিভাগের ইনফো-সরকারের কম্পিউটার নেটওর্য়াক ও সাইবার সিকিউরিটি ল্যাব-এর জন্য নির্ধারিত জায়গাটি জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা করে।’

এসময় সিএসসি বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে দোষী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, পাশাপাশি সিএসই বিভাগের জন্য বরাদ্দকৃত জায়গা অতিদ্রুত বিভাগকে বুঝিযে দেয়ার জন্য জোর দাবি জানান।

উল্লেখ্য, জায়গা বরাদ্দ ও অবৈধভাবে রুম দখলকে কেন্দ্র করে ২০১৫ সালে প্রথমবার ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ে পাশাপাশি অবস্থানকারী পরিবেশ বিজ্ঞান ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ২০১৫ সালে জাবি ক্যাম্পাস ৬২দিনের জন্য বন্ধ হয়ে যায়। ফলে এ ধরণের বিবাদ আবারো জাবিতে বড় সংকট তৈরী করতে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন।


আরো সংবাদ

সৌদি তেল স্থাপনায় হামলার পর মধ্যপ্রাচ্যে আরেকটি যুদ্ধ আসন্ন? কিশোর গ্যাং : যেভাবে গড়ে ওঠে দুর্ধর্ষ কিশোর অপরাধীদের দল সৌদিতে ড্রোন হামলা : বিনা প্রমাণে কাউকে দোষারোপ না করতে চীনের আহ্বান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে কাশ্মিরে যাওয়ার ঘোষণা ভারতের প্রধান বিচারপতির জাবি ভিসির অনিয়ম খতিয়ে দেখবে ইউজিসি পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হলে দিলিপ ঘোষকে যশোহর পাঠিয়ে দেবো তিন হাজার ৫ কোটি টাকা রাষ্ট্রের ক্ষতি ওমরাহর খরচ বাড়ছে, সৌদি ফি নিয়ে ধূম্রজাল রোমের রাস্তায় কুড়িয়ে পাওয়া অর্থ ফেরত দিয়ে আলোচিত বাংলাদেশী তরুণ ফাঁসির রায় শুনে আসামি হাসে বাদি কাঁদে হাতিয়ায় ইলিশের জালে ২২ ভাসমান মহিষ

সকল