১৮ অক্টোবর ২০১৯

এসএসসি-এইচএসসিতে জিপিএ ৫ প্রাপ্ত ডিআরইউ’র সদস্য সন্তানদের সংবর্ধনা

এসএসসি-এইচএসসিতে জিপিএ ৫ প্রাপ্ত ডিআরইউ’র সদস্য সন্তানদের সংবর্ধনা - নয়া দিগন্ত

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি’র (ডিআরইউ) সদস্য সন্তানদের মধ্যে এবছর মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষায় জিপিএ ৫ প্রাপ্ত কৃৃতী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা এবং বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে ডিআরইউ’র সাগর-রুনী মিলনায়তনে এ সংবর্ধনা দেয়া হয়।

ডিআরইউ সভাপতি ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনায় প্রধান অতিথি ছিলেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম, এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার এন্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. গোলাম ফারুক।

সংবর্ধনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক ও ডিআরইউ’র অর্থ সম্পাদক জিয়াউল হক সবুজের সঞ্চালনায় ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ডিআরইউ’র সাধারণ সম্পাদক কবির আহমদে খান। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন উপ-কমিটির সদস্য সচিব ও সংগঠনের কল্যাণ সম্পাদক কাওসার আজম।

উপস্থিত ছিলেন-ডিআরইউ সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল বারী, তথ্য প্রযুক্তি ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক আবদুল হাই তুহিন, ক্রীড়া সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শামীম, সাংষ্কৃতিক সম্পাদক মোঃ এমদাদুল হক খান, আপ্যায়ন সম্পাদক এইচ এম আকতার, কার্যনির্বাহী সদস্য খালিদ সাইফুল্লাহ, বি এম নূর আলম (বাদল নূর), মোহাম্মদ নঈমুদ্দীন ও রাশেদুল হক।

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম কৃতী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, বিশ্ব মানের শিক্ষা অর্জনের জন্য যা যা দরকার সবই এদেশে আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আগে আমাদের যখন বই পেতে ৬ মাস লাগতো, এখন বছরের শুরুতে শিক্ষার্থীদের হাতে বই পৌঁছে যায়, দেশে বই উৎসব হয়। বিশ্ব মানের শিক্ষা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা উপকরণ সবই শিক্ষার্থীদের হাতের নাগালে। তোমরা ভালো করে পড়াশোনা করো, মানুষের মতো মানুষ হও, তোমাদের মধ্যেই আগামী দিনের বাংলাদেশ দেখি।

রাজনীতি এবং সাংবাদিকতা দুটোই ঝুঁকিপূর্ণ উল্লেখ করে উপমন্ত্রী বলেন, সাংবাদিকদের সবসময় ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হয়, একইভাবে অনেক কাঠ-খর পুড়িয়ে রাজনীতিবিদ হতে হয়। সাংবাদিকরা যেমন রাজনীতিবিদদের দরদ বুঝে তেমনি রাজনীতিবিদরাও সাংবাদিকদের দরদ বুঝেন। ডিআরইউ’র সকল কর্মকাণ্ডে তিনি পাশে থাকবেন বলে জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তেব্যে সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার এন্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. গোলাম ফারুক ডিআরইউ’র এ ধরনের কর্মসূচীতে সব সময় পাশে থাকার কথা জানান।

পরে অতিথিরা কৃতী শিক্ষার্থীদের হাতে সম্মাননা পত্র, ক্রেস্ট ও বৃত্তি হিসেবে নগদ অর্থ তুলে দেন। ২০১৯ সালে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ প্রাপ্ত ২৩ জন কৃতী শিক্ষার্থীকে এ বছর পুরস্কার প্রদান করে ডিআরইউ।

এসএসসিতে সংবর্ধিত ও বৃত্তি প্রাপ্তরা

শাহ মোহাম্মদ মনওয়ার জাহান কবীরের কন্যা মালিহা মরিয়াম এশা, কাজী হাফিজুর রহমানের পুত্র কাজী আসিফুর রহমান, এইচ এম জামাল উদ্দিনের কন্যা অশিন বিনতে জামাল, জিয়াউদ্দিন সাইমুমের কন্যা আনিকা বুশরা, এস এম জাহাঙ্গীরের পুত্র ইনতিশার আহমেদ, মোস্তফা তারিক আল বান্নার পুত্র শেখ রফিক বিন তারিক, মোঃ রেজাউর রহিমের পুত্র মুহসিন রেজা, গিয়াস উদ্দিন আহমেদের পুত্র সাফওয়ান উদ্দিন আহমেদ, রফিকুল ইসলাম রতনের পুত্র সামিউল ইসলাম তন্ময়, রায়হান আল মুঘনির কন্যা মুমতাহিনা সাম্য, আশরাফ উল আলমের কন্যা ইশরাক জান্নাত মাধুর্য্য ও মোঃ শরিফুল আরিফ সোহেলের কন্যা আনিন্দিতা আরিফ চৈতি। ।

এইচএসসিতে সংবর্ধিত ও বৃত্তি প্রাপ্তরা

নিত্য গোপাল মন্ডলের পুত্র শ্রীদেব মন্ডল রাহুল, মোঃ শহিদুল আলমের পুত্র মোঃ তোফায়েল আলম, মশিউর রহমান টিপুর পুত্র নাদিম আশফাক তাবিন, ওবায়দুর রহমান শাহীনের কন্যা সুমাইয়া বিনতে শাহীন, মোঃ সিরাজুল ইসলামের কন্যা সিরাজুম মনিরা, শাহনাজ মুন্নীর কন্যা যুক্ত মনন, আব্দুল্লাহ আল ফারুকের কন্যা আদিতা ফারুক, রেজওয়ানুল হকের পুত্র নিলয় হক, মনোয়ার হকের পুত্র আজমাইনুল হক, মোঃ শাহানুজ্জামানের পুত্র তানিম ইশতিয়াক ও আশীষ-উর রহমানের কন্যা পুষ্পিতা রহমান।


আরো সংবাদ