২১ নভেম্বর ২০১৯

রাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনে লড়বে ১৬ জন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে সোম ও মঙ্গলবার। এবারের পরীক্ষায় তিনটি ইউনিটে মোট ৪ হাজার ৭১৩টি আসনের বিপরীতে গড়ে মোট ১৬ জন শিক্ষার্থী লড়বে।

শনিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের সভাপতিত্বে ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

এবারের ভর্তি পরীক্ষা ৩টি ইউনিটে হবে। এর মধ্যে এ ইউনিটে ৩১ হাজার ১২৯ জন, বি ইউনিটে ১৫ হাজার ৭৩২ জন এবং সি ইউনিটে ৩১ হাজার ২২৯ জন চূড়ান্ত প্রতিযোগী অংশ নিবেন। বহুনির্বাচনী প্রশ্ন (এমসিকিউ) ও লিখিত উভয় পদ্ধতিতে এবারের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। জালিয়াতি, অপতৎপরতা ঠেকাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাসহ এরই মধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

ভর্তি পরীক্ষার প্রথম দিন সোমবার (২১ অক্টোবর) প্রথম দিন সকাল ৯টা থেকে ১০টা ৪৫ পর্যন্ত এ ইউনিটের গ্রুপ-১ (রোল  ১০০০১ থেকে ২৫৫৬৫ পর্যন্ত), সকাল ১১টা ৪৫ থেকে ১টা ৩০ পর্যন্ত গ্রুপ-২ (রোল ৫০০০১ থেকে ৬৫৫৬৪ পর্যন্ত) এবং বিকেল ৩টা থেকে ৪টা ৪৫ পর্যন্ত বি ইউনিটের গ্রুপ-১ এর (বাণিজ্য-রোল ১০০০১ থেকে ১৮৬৩৭ পর্যন্ত  ও (অ-বাণিজ্য) রোল : ৮০০০১ থেকে ৮৭০৯৫ এর পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

ঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে ১০ টা ৪৫ পর্যন্ত সি ইউনিটের গ্রুপ-১ (বিজ্ঞান-রোল: ১০০০১ থেকে ২৫২৫৭), সকাল ১১টা ৪৫ থেকে ১টা ৩০ পর্যন্ত গ্রুপ-২ (বিজ্ঞান-রোল: ৫০০০১ থেকে ৬৫২৫৬ পর্যন্ত এবং গ্রুপ-৩ (অ-বিজ্ঞান-রোল: ৮০০০১ থেকে ৮০৭১৬ পর্যন্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

জানা গেছে, প্রতিটি পরীক্ষার সময়কাল ১ ঘন্টা ৪৫ মিনিট। এর মধ্যে প্রথম ৫০ মিনিট এমসিকিউ, পরবর্তী ১৫ মিনিট এমসিকিউ উত্তরপত্র সংগ্রহ ও লিখিত এসএকিউ পরীক্ষার উত্তরপত্র প্রদান করা হবে। শেষ ৪০ মিনিট লিখিত এসএকিউ পরীক্ষা হবে। এমসিকিউ পরীক্ষার পরবর্তী ১৫ মিনিট পরীক্ষা হলের বাইরে যাওয়া যাবে না। ভর্তি পরীক্ষায় এমসিকিউ ও লিখিত উভয়েই কোন নেগেটিভ মার্কস থাকছে না। ভর্তি পরীক্ষাসহ সংশ্লিষ্ট তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট www.admission.ru.ac.bd থেকেও জানা যাবে।

এদিকে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের মহিলা অভিভাবকদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পশ্চিম দিকের ছাত্রী জিমনেশিয়ামে রাত্রী যাপনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। একই সাথে পর্রীক্ষা চলাকালে শিক্ষাথীদের মহিলা অভিভাবকদের জন্য শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্র ও পুরুষ এবং মহিলা উভয়ের জন্য কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তন উন্মুক্ত থাকবে।

এবছর ভতিচ্ছুদের সহায়তায় বাইরের মেসগুলোতে কোনো অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হবে না এনিয়ে পদক্ষেপ নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। যদি অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হয় সেক্ষেত্রে প্রক্টরিয়াল বডিকে জানাতে আহ্বান করা হয়েছে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় অভ্যন্তরে কোনো ছাত্র সংগঠন, জেলা সমিতির ব্যানারে হেল্প ডেস্ক বা স্টল রাখা হবে না বলে নির্দেশনা দেওয়া হয়। তবে ভর্তিচ্ছুদের সহযোগিতায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে ১৬ টি হেল্প ডেস্কের ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। থাকবে সার্বক্ষণিক মেডিকেল টিম।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনন্দ কুমার সাহা, চৌধুরী মোহম্মদ জাকারিয়া, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. এম মোস্তাফিজুর রহমান, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. লায়লা আরজুমান বানু, জন সংযোগ প্রশাসক অধ্যাপক ড. প্রভাষ কুমার কর্মকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরো সংবাদ