২৫ আগস্ট ২০১৯

২৩ বছরে এটিএন বাংলা

-

আজ পথচলার ২২ বছর পূর্ণ করে ২৩ বছরে পা রাখতে যাচ্ছে দেশের প্রথম স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন বাংলা। ‘অবিরাম বাংলার মুখ’ স্লে­াগানকে বুকে ধারণ করে ১৫ জুলাই ১৯৯৭ সালে যাত্রা শুরু করে চ্যানেলটি। ওইদিন বিশ্বব্যাপী প্রথম বাংলা ভাষার সম্প্রচার ঘটে জনপ্রিয় এই বাংলাদেশী চ্যানেলটির মাধ্যমে। প্রতিষ্ঠানের স্বপ্নদ্রষ্টা ড. মাহফুজুর রহমান বাংলাদেশের সংস্কৃতি সারা বিশ্বের বাংলা ভাষাভাষী মানুষের কাছে পৌঁছে দেন স্যাটেলাইটের মাধ্যমে। শুধু সংবাদ নয়, অনুষ্ঠান প্রচারেও এটিএন বাংলা নিজেকে এগিয়ে রেখেছে। বিনোদনের পাশাপাশি শিক্ষা, খেলাধুলা, সমাজ, সংস্কৃতি নিয়ে অনুষ্ঠার প্রচারের বিষয়ে বারবারই প্রাধান্য দিয়েছে। অনুষ্ঠানের পাশাপাশি বাংলাদেশের খেলাধুলাকে সার্বিক পৃষ্ঠপোষকতা দিতে এটিএন বাংলা বদ্ধপরিকর। ২০০৭ সাল থেকে এখন পর্যন্ত দেশে ও দেশের বাইরে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন খেলা নিয়মিতভাবেই সরাসরি সম্প্রচার করে আসছে এটিএন বাংলা। দীর্ঘ পথপরিক্রমায় এটিএন বাংলার অর্জন অনেক। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলোÑ ২০০৪ সালের ২২ নভেম্বর ‘আমরাও পারি’ অনুষ্ঠানের জন্য ছোট পর্দার অস্কার খ্যাত এমি অ্যাওয়ার্ড অর্জন। এ ছাড়া অসংখ্য সম্মাননা রয়েছে চ্যানেলটির প্রাপ্তির তালিকায়।
বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আজ দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করা হবে। এটিএন বাংলা কার্যালয়ে বিশিষ্ট ব্যক্তিদের ফুলেল শুভেচ্ছা গ্রহণ দিনব্যাপী সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। বিকেল ৫টায় প্রচার হবে বিশেষ তথ্যচিত্র ‘আমি তোমাদেরই লোক’। সাড়ে ৫টায় প্রচার হবে সঙ্গীতানুষ্ঠান ‘মনের ফ্রেমে তুমি’। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে বিশেষ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ‘২৩ বছরে পদার্পণ’। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী নকীব খান, ফাহমিদা নবী, শুভ্র দেব, রবি চৌধুরী, বাপ্পা মজুমদার, আঁখি আলমগীর, লুইপা, মারিয়া শিমু, সামিয়া জাহান ও নীলিমা। লিখন রায়ের কোরিওগ্রাফিতে নৃত্য পরিবেশন করবেন মডেল অভিনেত্রী তানজিন তারিন এবং নৃত্য জুটি লিখন-নাদিয়া। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করবেন মুকাদ্দেম বাবু, আব্দুস সাত্তার ও মোশতাক হোসেন। ১১টায় প্রচার হবে সঙ্গীতানুষ্ঠান ‘মন থেকে রইলো শুভ কামনা’। ১২টায় প্রচার হবে হুমায়ূন আহমেদ পরিচালিত নাটক ‘অপরাহ্ন’।
দর্শকদের ভালোবাসা নিয়ে দিনে দিনে এগিয়ে চলেছে এটিএন বাংলা। ‘অবিরাম বাংলার মুখ’ স্লোগানকে বুকে ধারণ করা এই চ্যানেলটি দর্শকদের রায়ে শীর্ষস্থান দখল করেছে অনেক আগেই। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ এবং মানসম্পন্ন অনুষ্ঠান সম্প্রচারের মাধ্যমেই এই অবস্থানটি অক্ষুণœ রাখতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ এটিএন বাংলা।


আরো সংবাদ