২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ধারাবাহিক ঘুমন্ত শহরে শতাব্দী মিলি ও ভাবনা

-

আগামী ২১ জুলাই থেকে এনটিভিতে প্রচারের লক্ষ্যে নজরুল ইসলাম রাজু নির্মাণ করেছেন নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘ঘুমন্ত শহরে’। এরই মধ্যে নাটকটির প্রথম লটের কাজ শেষে ১৬ পর্ব নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে বলে জানান নির্মাতা রাজু। মাতিয়া বানু শুকুর রচনায় এই ধারাবাহিকটি ৫২ পর্ব পর্যন্ত নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে। তবে এটি ১০৪ পর্ব পর্যন্তও নির্মিত হতে পারে বলে জানা যায়। আমাদের প্রাত্যহিক জীবনের চলমান ঘটনার ওপর নির্মিত হয়েছে ‘ঘমুন্ত শহরে’ ধারাবাহিকটি। নির্মাতা নজরুল ইসলাম রাজু বলেন, ‘আমি আমার নির্মিত নাটকে সবসময়ই চেষ্টা করেছি আমাদের জীবনের গল্প বলতে। ঘুমন্ত শহরে নাটকে আমাদের বাস্তব জীবনের গল্পই উঠে এসেছে। সব শ্রেণীর দর্শকের কথা মাথায় রেখেই আমি নাটক নির্মাণ করি। আরেকটি কথা না বললেই নয়, নির্মাণে আমি গল্পকে তুলে ধরার ক্ষেত্রে আমি কোনোরকম ছাড় দেই না। অবশ্য শিল্পীরাও আমাকে দারুণ সহযোগিতা করেন। এ জন্য যারা আমার নাটকে কাজ করেন, তাদের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ।’ ধারাবাহিক এ নাটকটিতে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা শতাব্দী ওয়াদুদ, নন্দিত অভিনেত্রী ফারহানা মিলি ও ভার্সেটাইল অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা। শতাব্দী ওয়াদুদ বলেন, ‘রাজু ভাই নিঃসন্দেহে একজন গুণী পরিচালক। ঠাণ্ডা মাথায় তিনি শিল্পীদের কাছ থেকে কাজ আদায় করে নেন। শিল্পীরাও বেশ আগ্রহ নিয়ে কাজ করে। এটা তারই কৃতিত্ব।’ ফারহানা মিলি বলেন, ‘এর আগে রাজু ভাইয়ের নির্দেশনায় মেড ইন বাংলাদেশ নাটকে একটি চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে অভিনয় করেছিলাম। রাজু ভাই বেশ আয়োজন করে যতœ নিয়ে কাজ করেন। যে কারণে গল্পটা নির্মাণে ফুটে উঠে।’ মুঠোফোনে লন্ডন থেকে ভাবনা ‘ঘুমন্ত শহরে’ ধারাবাহিক নাটকে কাজ করা প্রসঙ্গে বলেন, ‘এই ধারাবাহিকে আমি একজন পার্লার গার্লের চরিত্রে অভিনয় করেছি। আমার জন্য এটা ব্যতিক্রম ধরনের একটি চরিত্র। নজরুল ইসলাম রাজু ভাই একজন শান্তশিষ্ট মেধাবী এবং খুব পরিশ্রমী একজন পরিচালক। একজন পারফেকসনিস্ট। তার নির্দেশনায় ঘুমন্ত শহরে কাজ করে আমার ভীষণ ভালো লেগেছে।’ এদিকে আগামীকাল শতাব্দী ওয়াদুদ মির্জা সাখাওয়াৎ হোসেন পরিচালিত ‘অর্জন ৭১’র মহরত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করার কথা রয়েছে। এই সিনেমায় তিনি একজন পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় অভিনয় করবেন। তার সহধর্মিণীর চরিত্রে অভিনয় করবেন প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী।
ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

 


আরো সংবাদ