২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

৮০ হাজারের বেশি রুশ সেনা ইউক্রেন ঘিরে রেখেছে : পোরোশেঙ্কো

৮০ হাজারের বেশি রুশ সেনা ইউক্রেন ঘিরে রেখেছে : পোরোশেঙ্কো - সংগৃহীত

ইউক্রেনের সঙ্কটময় পরিস্থিতি চরম রূপ নিয়েছে। ইউক্রেনে সামরিক আইন জারির পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে এরই মধ্যে ৮০ হাজারের বেশি সেনা দিয়ে ইউক্রেন ও অধিকৃত ক্রিমিয়া উপদ্বীপ ঘেরাও করে রেখেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত দোনেস্ক ও লুহান্সক শহরেও সেনা মোতায়েন করেছে রাশিয়া। শনিবার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট পেত্রো পোরোশেঙ্কো এই কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ইউক্রেন সীমান্তে প্রতিনিয়ত টহল দিচ্ছে রুশ ট্যাংক ও সামরিকযান। আকাশে চক্কর দিচ্ছে যুদ্ধবিমান।

শনিবার আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েন্স আয়ার্সে জি-২০ সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের তিনি বলেন,‘ইউক্রেনে দীর্ঘদিনের শাসক বহাল থাকলে সঙ্কট কখনও শেষ হবে না।’

জানা যায়, রাশিয়ার এ সামরিক পদক্ষেপের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সমর্থন চেয়েছেন পোরোশেঙ্কো। তিনি বলেন,‘ইউক্রেনের সীমান্তজুড়ে এক হাজার ৪০০ কামান ও রকেট সিস্টেম, ৯০০ ট্যাংক, দুইহাজার ৩০০ সশস্ত্র সামরিকযান মোতায়েন করে রেখেছে রাশিয়া। পাশাপাশি ক্রিমিয়ার ভেতরে ও বাইরের আকাশে ৫ শতাধিক সামরিক বিমান ও ৩০০ হেলিকপ্টার চক্কর দিচ্ছে।’

পোরোশেঙ্কো আরও জানান, কৃষ্ণসাগর, আজোভ ও এজিয়ান সাগরে ৮০টি সামরিক জাহাজ ও ৮টি সাবমেরিন রয়েছে রাশিয়ার।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহের প্রথমদিকে ক্রিমিয়া উপদ্বীপের কাছে ইউক্রেনের নৌবাহিনীর তিনটি জাহাজ এবং ২৪ নাবিককে আটক করে রুশ নিরাপত্তাবাহিনী।

এ ঘটনায় ফের ইউক্রেন ও রাশিয়ার সম্পর্কে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। ঘটনার পরপরই ইউক্রেনের দশটি অঞ্চলে সামরিক আইন জারি করেন প্রেসিডেন্ট পোরোশেঙ্কো। সামরিক আইনের আওতায় ইউক্রেনে ১৬ থেকে ৬০ বছর বয়সী রুশদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়।


আরো সংবাদ