২৩ অক্টোবর ২০১৯

পোষ্টের নীচে রানাতেই আস্থা জেমি ডে’র

নিশ্চয়ই গত পরশু এপ্রিল ২৫ এর বিপক্ষে শহীদুল আলম সোহেলের পরফরম্যান্স আর দ্বিধায় ফেলবে না কোচ জেমি ডেকে। নিত্য ভুল করা এই গোলরক্ষক আবারও নিজের দোষে গোল খেয়েছেন। ফলে আবাহনীর কাছে ৩-৪ গোলে ম্যাচ হেরেও ফাইনালে খেলার আশা জিইয়ে রাখে এপ্রিল ২৫। মাঠে বসে সোহেলের এই ভুল নিজ চোখেই দেখেন জাতীয় দলের কোচ জেমি ডে।

এমনিতেই সোহেলকে জাতীয় দলে ডাকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। গত পরশু এএফসি কাপে তার ওই ভুল আরো জোরালো করেছে প্রশ্নকে। সোহেল সম্পর্কে কোচের জবাব, ‘সে খুব ভালো গোলরক্ষক। তবে বড্ড অভাব মনযোগ ও ধারাবাহিকতার।’ এরপরই যোগ করেন, বাংলাদেশ দলে তো গোলরক্ষক পজিশনে প্রথম পছন্দ আশরাফুল ইসলাম রানা।

এরপর আছে আনিসুর রহমান জিকো। মাজহারুল ইসলাম হিমেলও আছেন তালিকায়। কোচ আরো জানান, সোহেলের সমস্যা দূর করতে গোলরক্ষক কোচ কাজ করবেন। নতুন গোলরক্ষক কোচ বব তাকে এখনও দেখেনি। আশা করি জাতীয় দলের ক্যাম্পে তাকে আরো ভালো ভাবে গাইড করা হবে। জেমি ডে খুশী ২০১০ বিশ্বকাপে খেলা উত্তর কোরিয়ার চ্যাম্পিয়ন দল এপ্রিল ২৫ এর বিপক্ষে আবাহনীর ৪-৩ গোলের জয়ে। যেখানে জাতীয় দলের দুই সদস্য জীবন ও সোহেল রানা গোল পেয়েছেন।

তবে জেমি খুশী হতেন যদি স্কোর লাইন ৪-৩ না হয়ে ৪-২ হতো। তাহলে হোমে ২-০তে জেতাটা বেশ চাপেরই হতো কোরিয়ানদের। জানান তিনি। তার আশা আবাহনীর এই পারফরম্যান্স বাংলাদেশ দলকে আরো উৎসাহিত করবে আফগানিস্তানের বিপক্ষে জিততে।


আরো সংবাদ