২৪ অক্টোবর ২০১৯

ইন্টার মিলানের বিপক্ষে মাঠে নামবেন মেসি

এ্যান্টনিও গ্রীজম্যান বলেছেন, তিনি জানেন বার্সেলোনায় থিতু হওয়া কঠিন। কিন্তু বাস্তবে তিনি যতটা ভেবেছিলেন এটি তার চেয়েও কঠিন।

বুধবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ফুটবলে নিজেদের মাঠে ইন্টার মিলানের মোকাবেলা করবে বার্সেলোনা। প্রথম ম্যাচে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে ড্র করার পর কালকের ম্যাচে কাতালানদের এগিয়ে নেয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন গ্রীজম্যান।

নতুন ক্লাবে এসে নিজেকে প্রমাণ করার ব্যাপারটিও রয়েছে এই ফরাসি তারকার। কারণ আর্নেস্টো ভালভার্দের দলে এসে এখনো পর্যন্ত আগের মৌসুমের মত ধারাবাহিক দক্ষতা প্রদর্শনে ব্যর্থ হয়েছেন ১২০ মিলিয়ন ইউরোতে ছাড় দেয়ার শর্তে ধারে যোগ দেয়া এই তারকা।

মৌসুমের শুরুতেই ভালভার্দে বলেছিলেন, ‘বিলবাওয়ের বিপক্ষে ম্যাচে তিনি প্রত্যাশিত দক্ষতা প্রদর্শন করতে পারেননি।’ তবে দলের হয়ে আরো বেশি ম্যাচ খেলার মাধ্যমে নিজেকে ভাল অবস্থানে পৌঁছে দিতে পারবেন বলেও মন্তব্য করেন কাতালান দলের আর্জেন্টাইন কোচ।

অবশ্য পরের ম্যাচেই রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে জোড়া গোল করেছেন গ্রীজম্যান। এরপর ভিলারিয়ালের বিপক্ষে জয়ের পর তাকে জিজ্ঞেস করা হয়, বার্সেলোনায় নিজের সুচনার অনুভূতি প্রসঙ্গে। জবাবে গ্রীজম্যান বলেন, ‘এখানকার পরিবেশ আলাদা। এখানকার ফুটবল ভিন্ন। ভিন্ন অবস্থান। আমি আগেই জানতাম এখানে মানিয়ে নেয়া কঠিন হবে।

তবে আমার মনে হয়, প্রতিটি ম্যাচেই আমি উন্নতি করছি। এটিই সত্যি। এ পর্যন্ত তিনটি গোল পাওয়া খুব খারাপ নয়। সবে এখানে এসেছি। আমি আরো ভাল করতে পারব। দলের হয়ে আরো গোল করার জন্য, বা গোলে সহায়তা করার জন্য এবং আরো ভাল খেলার জন্য আমি নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছি।’

নিজের পক্ষে সাফাই গাওয়ার কারণ গ্রীজম্যানের অবশ্য আছে। তিনি এখন যে দলটিতে যোগ দিয়েছেন সেটি ৫ ম্যাচ শেষে ২৫ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে বাজে অবস্থানে রয়েছে। চ্যাম্পিয়ন্স লীগে গত বছর লিভারপুলের কাছে হেরে যাবার পর এবারের আসরেও খুব একটা সুবিধাজনক অবস্থান এখনো পর্যন্ত তৈরী করতে পারেনি কাতালান জায়ান্টরা।

বিশ্বের সেরা স্ট্রাইকারদের একজন হিসেবে বার্সায় যোগ দিয়েছেন গ্রীজম্যান। কিন্তু দেখা গেল নতুন এই ক্লাবটি নেইমারকে দলে ভেড়ানোর জন্য গোটা গ্রীষ্ম জুড়েই প্রচেস্টা চালিয়েছে। ওই ব্রাজিলীয় যদি এখানে আসতে পারতেন তাহলে হয়তো অনেক কিছু থেকেই বঞ্চিত হতেন গ্রীজম্যান।

অবশ্য নতুন ক্লাবের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলারও একটি ব্যাপার রয়েছে। সেই সঙ্গে বার্সার খেলোয়াড় ও দর্শকদের সঙ্গেও। কারণ ১২ মাস আগে একটি প্রামাণ্যচিত্রে নিজের করা মন্তব্যের কারণেও এখন বিব্রতকর অবস্থায় রয়েছেন এই ফরাসি প্লে মেকার।

গত মাসেই ডিয়ারিও স্পোর্টসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বার্সা সুপার স্টার লিওনেল মেসি বলেছেন, ‘সত্যিকার অর্থে তার (গ্রীজম্যান) সঙ্গে খুব বেশি একটা সময় কাটানো হয়নি। দলে প্রত্যাবর্তনের পর থেকেই আমি ইনজুরিতে রয়েছি এবং নিজের মত অনুশীলন করছি।

তারাও সফরে ছিল। তারা ফেরার পর সাজঘরে আমরা একে অপরের দেখা পেয়েছি। কিন্তু আমি দলের সঙ্গে অনুশীলনে ছিলাম না। আমাদের মধ্যে অনেক বিষয় নিয়ে পারস্পরিক আলাপ আলোচনার প্রয়োজন রয়েছে।’

নতুন দলে অবশ্য এখনো পর্যন্ত বিভিন্ন পজিশনে খেলছেন গ্রীজম্যান। তিন ম্যাচে খেলেছেন মধ্যমাঠে। পাঁচবার বাঁ প্রান্তে এবং তিনবার আক্রমণভাগে খেলেছেন তিনি। শুধু তাই নয় ক্লাবে এ পর্যন্ত আটটি ম্যাচে অংশ নিয়েছেন গ্রীজম্যান। তন্মধ্যে ছয়বার ভিণœ ভিন্ন আক্রমন ভাগের কম্বিনেশনে যুক্ত হতে হয়েছে তাকে। এ সময় তাকে জুটি বাঁধতে হয়েছে লুইস সুয়ারেজ, ওসমানে ডেম্বেলে, রাফিনহা, কার্লেস পেরেজ, আনসু ফাতি ও লিওনেল মেসির সঙ্গে।

কোচ ভালভার্দে বলেন, ‘তিনি (গ্রীজম্যান) এমন একজন খেলোয়াড়, যিনি বিভিন্ন পজিশনে খেলতে পারেন। আমাদেরকে দেখতে হবে খেলোয়াড়দের কিভাবে অন্তর্ভুক্ত করা যায়।’

গত মে মাসে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ছাড়ার ঘোষণা দিয়ে গ্রীজম্যান বলেছিলেন তিনি নতুন করে চ্যালেঞ্জ নিতে আগ্রহী। এদিকে নতুন ক্লাবের আক্রমন ভাগে যুক্ত হয়েছেন ১৬ বছর বয়সি বিস্ময় বালক আনসু ফাতি ও ২১ বছর বয়সি পেরেজ।

তবে এক সময় ধারাবাহিকতাহীনতা কমে আসবে গ্রীজম্যানের। বর্তমান পরিস্থিতিতে তার সুচনাটি উৎসাহব্যঞ্জক। ইন্টারের বিপক্ষে আসন্ন ম্যাচে আরো বেশি কিছু প্রদর্শন করতে চান গ্রীজম্যান।

চ্যাম্পিয়ন লিগের এই ম্যাচ দিয়ে দলে ফিরবেন লিওনেল মেসিও।


আরো সংবাদ