১৫ নভেম্বর ২০১৯

শিশুর জন্য কারনিটিন

-

ফ্যাট বা চর্বি একটি শক্তি উৎপাদনকারী খাদ্য উপাদান। এই ফ্যাট বা চর্বি কতগুলো ফ্যাটি এসিডের সমন্বয়ে গঠিত। ফ্যাট এসিডগুলো লিভার (যকৃত) এবং শরীরের অন্যান্য কোষ বা কলার মাইটোকন্ড্রিয়ায় ভেঙে মূলত শক্তি উৎপাদন করে। কিন্তু লং চেইন ফ্যাটি এসিড মাইটোকন্ড্রিয়ায় অনুপ্রবেশের জন্য কারনিটিন (বিটা হাইড্রক্সি-গামা-ট্রাই মিথাইন এমোনিয়াম বিউটারেট) নামক একটি জৈব পদার্থ অত্যাবশ্যক। কারনিটিন শরীরে বিশেষ করে মাংসে প্রচুর পরিমাণ বিদ্যমান। মাইক্রোজোম ও মাইটোকন্ডিয়ার বহিঃপর্দায় লং চেইন ফ্যাট এসিড এসাইল কো-এ তে সক্রিয় হয়। এই লং চেইন এসাইল কো-এ কারনিটিন ছাড়া মাইটোকন্ড্রিয়ায় প্রবেশ করতে পারে না। কারনিটিন এসাইন ট্রান্সফারেজ-১ নামক জারকরস কারনিটিনের অনুপ্রবেশ প্রক্রিয়াতে সাহায্য করে। ফলে এটা এসাইল কারনিটিন হিসেবে মাইক্রোকন্ড্রিয়ায় প্রবেশ করে বিটা অক্সিডেশনে যায়। ফ্যাটি এসিড ভাঙা বা জারণ ক্রিয়ার জন্য যে কারনিটিন প্রয়োজন তা সাধারণত খাবার থেকে আসে। কিন্তু কোনো কৃত্রিম খাদ্যে তথ্য ফ্যাটি এসিড সংবলিত খাদ্যে প্রয়োজনীয় পরিমাণ কারনিটিন একই সাথে না থাকলে সেই ফ্যাটি এসিড (ফ্যাট বা চর্বি) শরীরে তেমন কাজে আসে না। শিশুর জন্য মায়ের দুধের বিকল্প নেই। তবুও যে সব শিশু কোনো না কোনো কারণে মায়ের দুধ থেকে বঞ্চিত এবং পরে কৃত্রিম দুধ বা কৌটায় শিশুখাদ্য পান করে, তাদের (এক বছর বয়সের ওপর) সেই কৌটার দুধ বা শিশুখাদ্যে কারনিটিন সরবরাহ করা একান্তভাবে প্রয়োজন। বাজারে প্রচলিত কৌটার শিশুখাদ্যে পেডিয়াসিউর ছাড়া সাধারণত কারনিটিন থাকে না। কারনিটিনের অভাবে হৃৎপিণ্ডের মাংসের অক্ষমতা, মাংসপেশির দুর্বলতা, অলস অলস ভাব, খিঁচুনি, কর্মক্ষমতা হাস, শিশুদের ধীরে দেহ বৃদ্ধি এবং বিলম্ব মানসিক বিকাশ ঘটে। যেসব কারণে কারনিটিনের অভাব ঘটার সম্ভাবনা থাকে, সেগুলো হচ্ছে ফ্যাটি এসিড জারণ ক্রিয়ার এটি, মাইটোকন্ড্রিয়াল মাইওপ্যাথি, ডায়ালাইসিস, পূর্ণতা প্রাপ্তির আগেই জন্ম নেয়া শিশু, কারনিটিন ছাড়া টিপিএন (এনএভিপি) প্রদান ইত্যাদি। সুতরাং এসব বিবেচনায় আনলে শরীরে কারনিটিনের প্রয়োজনীয়তা যে কত ব্যাপক তা সহজেই অনুমেয়।


আরো সংবাদ