২১ অক্টোবর ২০১৯

সাইনাস অপারেশন অবসাদ দূর করে

-

সাইনুসাইটিস একটি অতি সাধারণ রোগ। বিভিন্ন জীবাণু দিয়ে সাইনুসাইটিস রোগ হয়। সাইনুসাইটিসে আক্রান্ত হলে রোগী মাথাব্যথা ও অন্যান্য উপসর্গের সাথে দীর্ঘমেয়াদি অবসাদে ভোগে এবং এ ব্যাপারটিকে তারা একটি প্রধান সমস্যা বলে মনে করে, একই সাথে তাদের মুখমণ্ডলে ব্যথা থাকে এবং নাক বন্ধ থাকে। তারা অতিরিক্ত ক্লান্ত হয়ে যায়, রোগের বিভিন্ন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও হয়।
যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টনে একদল চিকিৎসক পর্যবেক্ষণ করে পেয়েছেন যে, অপারেশনের পর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন সাইনাস রোগীদের কর্ম সাম্যর্থ বেড়ে যায়। ব্রাইহাম এবং উইমেন্স হাসপাতালের বিশিষ্ট লেখক ড. নীল ভট্টাচার্য, জর্জটাউন ইউনিভার্সিটি মেডিক্যাল সেন্টার, সেন্ট লুইস ইউনিভার্সিটি স্কুল অব মেডিসিন, ওরেগন হেলথ অ্যান্ড সায়েন্স ইউনিভার্সিটির গবেষণায় ৩৪২৭ জন রোগী নিয়ে ২৮টি সমীক্ষায় দেখেছেন যে, সাইনাস অপারেশনের আগে যারা অতি ক্লান্তি প্রকাশ করতেন, তাদের শক্তি এবং সামর্থ্য ফিরে এসেছে প্রায় এক বছর পর। লেখকের রিপোর্টটি প্রকাশিত হয়েছে ব্যাপক জনপ্রিয় জার্নাল লেরিংগোস্কোপে। পরিশেষে এটা বিজ্ঞানসম্মত ভাবে প্রমাণিত যে, সাইনাস অপারেশনের পর রোগীর ক্লান্তি দূরীভূত হবে এবং রোগী তার স্বাভাবিক দৈনন্দিন কর্মকাণ্ডে ফিরে যাবে। মি. ভট্টাচার্যও তার গবেষণার ফলাফলে এটা বলেছেন।
আমাদের দেশেও অনেক সাইনাসের রোগী আছেন। বর্তমানে বাংলাদেশে সাইনাসের আধুনিক চিকিৎসা যেমন- ঋঊঝঝ বা ফাংশনাল এন্ডোসকোপিক সাইনাস সার্জারি (ফেস) নিয়মিত হচ্ছে। এ ধরনের অপারেশনে কোনো কাটাছেঁড়া লাগে না এবং অপারেশনের ফলাফলও খুবই ভালো। ফেসের (ঋঊঝঝ) জন্য আধুনিক সেটআপ এবং দক্ষ-প্রশিক্ষিত সার্জন দরকার হয়। ঢাকার প্রায় সব বড় বড় হাসপাতালে এ অপারেশন নিয়মিত হচ্ছে।

লেখক : নাক, কান, গলা বিশেষজ্ঞ সার্জন, আনোয়ার খান মডার্ন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, ধানমন্ডি, ঢাকা।
ফোন : ০১৮১৯ ২২২ ১৮২


আরো সংবাদ