২২ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৪, ১ সফর ১৪৩৯

নতুন প্রকাশ

-

কুরআন হাদিসের আলোকে মুসলিম জীবন
মুহাম্মদ ইকবাল কিলানী
অনুবাদ : মুহাম্মদ হারুন আযিযী নদভী
প্রকাশক : দারুস সালাম বাংলাদেশ
৩৮/৩, কম্পিউটার কমপ্লেক্স, বাংলাবাজার, ঢাকা
মোবা : ০১৭১৫৮১৯৮৬৯
কুরআন অবতীর্ণের আগে আরবের সামাজিক অবস্থা, সামাজিকতা, চারিত্রিক, রাজনৈতিক সবদিক থেকে অন্ধকার এবং বর্বরতার অতল তলে নিমজ্জিত ছিল। সর্বত্র শিরক, মূর্তিপূজার সয়লাব ছিল। মানুষ একে অপরের রক্তপিপাসু এবং একে অপরের সম্পদ ও সম্মান লুণ্ঠনে ব্যস্ত ছিল। প্রতিশোধের বদলে প্রতিশোধ নেয়ার জন্য যুগ যুগ ধরে যুদ্ধ চলত, কন্যাসন্তানদের জীবিত কবর দেয়া সাধারণ বিষয় ছিল। অসংখ্য নারীর সাথে অবৈধ সম্পর্ক স্থাপন করাকে গৌরবের বিষয় মনে করা হতো। মদ পান, জুয়া, ব্যভিচার তাদের জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশে পরিণত হয়েছিল। উলঙ্গপনার অবস্থা ছিল এই যে, নারী ও পুরুষেরা উলঙ্গ হয়ে বাইতুল্লাহ (কাবা ঘরের) তাওয়াফ করাকে সওয়াবের কাজ বলে মনে করত। গরিব, মিসকিন, বিধবা, এতিমদের দেখার মতো কেউ ছিল না। এমতাবস্থায় যখন কুরআন অবতীর্ণ হলো, তখন মাত্র কয়েক বছরের অল্প সময়ে কুরআনের শিক্ষা আশ্চর্যজনকভাবে আরবদের দৃশ্যপট পরিবর্তন করে দিলো।
আল কুরআন মানবজাতির জন্য একটি সংবিধান এবং তাদের মুক্তির দিশারি, কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, আল কুরআনকে বর্তমানে আমরা মুসলমানেরা শুধু তিলাওয়াতের পুস্তকে পরিণত করেছি। বুঝে পড়ে কুরআনের শিক্ষাকে নিজের জীবনে, পারিবারিক জীবনে, সামাজিক জীবনে বাস্তবায়নের ধারেকাছেও আমরা নেই। ফলে কুরআনের শিক্ষার যথাযথ আমল না করার কারণে তার যথাযথ শিক্ষা থেকেও আমরা বঞ্চিত হচ্ছি।
‘তালিমাত কুরআন’ বিষয়টি এত ব্যাপক যে, কয়েক শ’ পৃষ্ঠার গ্রন্থে তা আলোচনা করা সম্ভব নয়। লেখক বর্তমান অবস্থার আলোকে শুধু ওই সব শিক্ষার ওপর আলোকপাত করার চেষ্টা করেছেন, যে বিষয়গুলো ইসলামের শত্রুরা বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ঠাট্টা-বিদ্রƒপের নিদর্শনে পরিণত করেছে। উল্লিখিত শিক্ষাগুলো ছাড়াও আকিদা, গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ এবং নিষেধাবলির উল্লেখ করা হয়েছে, যা পড়ে পাঠক উপকৃত হবেন। অনুবাদকদ্বয়ও যথাসম্ভব চেষ্টা করেছেন মূল লেখকের বক্তব্যকে সহজ-সরল ভাষায় উপস্থাপন করার জন্য।
নান্দনিক প্রচ্ছদ, রঙিন অফসেট কাগজ, অফসেট ছাপা এবং বোর্ডবাঁধাই গ্রন্থটির সৌকর্য বাড়িয়েছে। ৩০৪ পৃষ্ঠার গ্রন্থটির দাম রাখা হয়েছে ৩৭৫ টাকা মাত্র। গ্রন্থটি সংগ্রহে রাখা যেতে পারে।
হ আসিফ আবরার


আরো সংবাদ