২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

স্বামীর ঘর থেকে গৃহধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় স্বামীর ঘর থেকে তানিয়া আকতার (১৮) নামে এক গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসাপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ৬ মাসে আগে উপজেলার চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের বাটিকাবাড়ি গ্রামের তোজাম্মেল হকের মেয়ে তানিয়ার সাথে পাশের চালাপাড়া গ্রামের ফরিদ উদ্দিনের ছেলে কামরুল ইসলামের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে পেশায় মনোহরি ব্যবসায়ী কামরুল ইসলামের সাথে তানিয়া আকতারের মনোমালিন্য চলে আসছে। বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার সালিশী বৈঠকও হয়েছে। বুধবার রাতে ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। বৃহস্পতিবার ভোরে ঘুম থেকে উঠে কামরুল প্রচার করে তানিয়া গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনার পর কামরুল ও তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে।

নিহত তানিয়ার মামা আজগর আলী বলেন, বিয়ের পর মাদকাসক্ত কামরুল আমার ভাগ্নিকে নির্যাতন করতো। তানিয়াকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালানোর জন্য গলায় ফাঁস দিয়ে ঘরের ধর্ণার সাথে ঝুলিয়ে রেখে বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে কামরুল। এ ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এ বিষয়ে কামরুলের বড় ভাই জাহাঙ্গীর আলম বলেন, স্বামী-স্ত্রীর মাঝে সংসারিক বিষয়াদি নিয়ে বিরোধের জের ধরে তানিয়া গলায় ওড়না দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তাকে নির্যাতন কিংবা হত্যা করা হয়নি।

ধুনট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান বলেন, স্বামীর ঘর থেকে নববধুর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যার অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরো সংবাদ