২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

গৌরীপুরে বাসচাপায় একই পরিবারের ৫ জন নিহত অন্যান্য স্থানে নিহত আরো ৫

-

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে বাসচাপায় একই পরিবারের পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া অন্যান্য স্থানে সড়কে নিহত হয়েছেন আরো পাঁচজন।
ময়মনসিংহ অফিস ও গৌরীপুর সংবাদদাতা জানান, ময়মনসিংহের গৌরীপুরে গতকাল সকালে দ্রুতগতির একটি বাসের চাপায় একই পরিবারের পাঁচজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন- মাধবদী বাংলা টেক্সটাইলের মালিক রফিকুল ইসলাম (৪৫), তার স্ত্রী শামসুন্নাহার শাহীনা (৩৫), কলেজপড়–য়া ছেলে নাবিল ইসলাম (১৯) ও মেয়ে রওনক জাহান (১৩) এবং রফিকুলের শ্যালক আশরাফ (১৪)। পরিবারের একমাত্র বেঁচে যাওয়া তিন বছরের শিশুপুত্র নাহিদকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউতে) রাখা হয়েছে। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত প্রাইভেটকার চালক সেলিমকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
তাদের গ্রামের বাড়ি নেত্রকোনা জেলার সুসং দুর্গাপুরে। সপরিবারে বসবাস করতেন নরসিংদী জেলার মাধবদীতে। তারা ঈদের ছুটিতে এক চাচার বিয়ে উপলক্ষে সপরিবারে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মধুপুর শ্বশুরবাড়ি এসেছিলেন। শুক্রবার সকালে তারা মাধবদী নিজ ঠিকানায় ফিরছিলেন।
গৌরীপুর থানার ওসি কামরুল ইসলাম মিয়া জানান, রফিকুল ইসলাম ও তার পরিবারের লোকজন ঈদের ছুটি শেষে নিজের প্রাইভেটকারে বেলা ১১টায় ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কের গৌরীপুর উপজেলার রামগোপালপুর নামক স্থানে পৌঁছলে কিশোরগঞ্জগামী এমকে পরিবহনের একটি বাস ওভারটেক করার সময় তাদের গাড়ি চাপা দেয়। এতে প্রাইভেটকারটি রাস্তার পাশে একটি বড় গাছে ধাক্কা লেগে দুমড়ে মুচড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই রফিকুল ইসলামের স্ত্রী শামসুন্নাহার শাহীনা মারা যান। খবর পেয়ে স্থানীয়রা, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় রফিকুল ইসলামসহ অন্যদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক রফিকুল ইসলাম, নাবিল ইসলাম ও মেয়ে রওনক জাহানকে মৃত ঘোষণা করেন। এরপর বিকেলে শ্যালক আশরাফ মারা যান। পুলিশ বাসটি আটক করেছে। চালক পালিয়ে গেছে।
এ দিকে পরিবারের চার সদস্যকে হারিয়ে হাসপাতালে কান্নায় ভেঙে পড়েন নিকটআত্মীয় ও স্বজনরা। নিহত রফিকুলের চাচাতো বোন নাজনীন সুলতানা শম্পা জানান, ওই পরিবারের পাঁচ সদস্যের মধ্যে একমাত্র বেঁচে আছে তিন বছরের শিশুপুত্র নাহিদ। আল্লাহ যেন ভাতিজা নাহিদকে বাঁচিয়ে রাখেন, সবার কাছে সেই দোয়া প্রার্থনা করি। চাচাতো ভাই আনিসুজ্জামান ভূঁইয়া জানান, বাসটি বেপরোয়া গতিতে চলছিল। বিপরীত দিক থেকে আসা অপর একটি প্রাইভেটকারকে বাঁচাতে গিয়ে এই প্রাইভেটকারটিকে চাপ দেয়। এতে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে রাস্তার পাশে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনা ঘটে।
পূর্বধলা (নেত্রকোনা) সংবাদদাতা জানান, নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার শ্যামগঞ্জ-বিরিশিরি সড়কের সদর ইউনিয়নের আতকাপাড়া এলাকায় গতকাল সকালে বাসের নিচে চাপা পড়ে মোটরসাইকেল চালক রতন খাঁ (৪৫) নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আরোহী রমজান খাঁ (৩৫) আহত হন। নিহত রতন খাঁ উপজেলার জারিয়া ইউনিয়নের ছনধরা পশ্চিমপাড়া গ্রামের সিরাজ খাঁ ও আহত রমজান খাঁ একই গ্রামের সরাফত খাঁর ছেলে।
এলাকাবাসী জানান, গতকাল সকালে রতন খাঁ তার চাচাতো ভাই রমজানকে নিয়ে পূর্বধলা বাজার থেকে মোটরসাইকেলে বাড়ি যাচ্ছিলেন। পথে ঘটনাস্থলে বিপরীত দিক থেকে আসা ঢাকাগামী সুলতানা এন্টারপ্রাইজ পরিবহনের একটি বাসের (ঢাকা মেট্রো-গ ১১-১৮১৪) সাথে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই রতন খাঁ নিহত ও রমজান খাঁ আহত হন। স্থানীয়রা আহত রমজানকে উদ্ধার করে পূর্বধলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
ভালুকা (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা জানান, ময়মনসিংহের ভালুকায় সড়ক দুর্ঘটনায় উজ্জ্বল মিয়া (৩০) নামে এক ব্যাক্তি নিহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটে গতকাল সকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে উপজেলার মাস্টারবাড়ি এলাকায়।
সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা জানান, চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুর্ঘটনায় পড়ে মোটরসাইকেলের এক আরোহী নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম হারুন অর রশিদ (২৪)। তিনি উপজেলার সোনাকানিয়া বশরত আলী সিকদারপাড়া ৯ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার গুরা মিয়ার ছেলে। এ সময় মোটরসাইকেলের আরোহী মো: সাকিব (১৮), পথচারী আবদুর রশিদ (৫০) ও এয়াকুব আলী (৬৫) গুরুতর আহত হন। আহতরা বর্তমানে লোহাগাড়া উপজেলার সাউন্ড হেলথ বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তাদের মধ্যে পথচারী আবদুর রশিদের অবস্থার অবনতি হলে তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। গতকাল বিকেলে উপজেলার সেনেরহাট-আমিরাবাদ সড়কের রঙ্গিপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
রাজবাড়ী সংবাদদাতা জানান, রাজবাড়ীতে পিকনিকের বাস উল্টে মো: শামীম (১৬) নামের এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ২৫ যাত্রী। গত বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) গভীর রাতে জেলার কালুখালী উপজেলার দুর্গাপুর এলাকায় রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
দুর্ঘটনায় নিহত শামীম মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার খাসমহল গ্রামের মো: সফির ছেলে। সে স্থানীয় একটি স্কুলে নবম শ্রেণীর ছাত্র ছিল।
আহদের উদ্ধার করে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে পাঠানোর পর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে জানিয়েছে পুলিশ।
বগুড়া অফিস জানায়, বগুড়ার মোকামতলায় দুধ পরিবহনের ট্যাংক ও যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ট্যাংক গাড়ি চালক সামসুল ইসলাম (৫০) নিহত হয়েছেন। তিনি গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে। গতকাল ভোরে বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের বিহারপুর নামকস্থানে দুর্ঘটনাটি ঘটে।

 


আরো সংবাদ