২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

শুভ জন্মাষ্টমী উদযাপিত

জন্মাষ্টমী উপলক্ষে রাজধানীতে র্যালি : নয়া দিগন্ত -

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও আনন্দ-উৎসবের মধ্য দিয়ে গতকাল শুক্রবার রাজধানীসহ সারা দেশে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের জন্মাষ্টমী উদযাপিত হয়েছে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা তাদের আরাধ্য ভগবান শ্রী কৃষ্ণের শুভ জন্মাষ্টমী উদযাপন করেছেন।
হিন্দু পুরাণ মতে, ভাদ্র মাসের শুক্লপক্ষের অষ্টম তিথিতে ভগবান শ্রী কৃষ্ণ জন্মগ্রহণ করেন। মানবজাতির কল্যাণ এবং ন্যায়নীতি প্রতিষ্ঠার জন্য শ্রী কৃষ্ণের আবির্ভাব ঘটেছিল। ভক্তদের বিশ্বাস, দুষ্টের দমন করতে যুগে যুগে এভাবেই ভগবান মানুষের মাঝে নেমে আসেন এবং সত্য ও সুন্দরকে প্রতিষ্ঠা করেন।
শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার সকালে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় গীতাযজ্ঞ এবং বিকেলে উৎসবমুখর পরিবেশে শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। এ ছাড়া সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উদ্যোগে পরিচালিত বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিনটি উদযাপিত করে। জন্মাষ্টমী উপলক্ষে গতকাল ছিল সরকারি ছুটি। সাপ্তাহিক ছুটি থাকা সত্ত্বেও সরকার এ দিন সরকারি ছুটি ঘোষণা করে।
রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণীতে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পাশাপাশি দেশবাসীকেও জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি বঙ্গভবনে হিন্দু সম্প্রদায়ের বিশিষ্ট নাগরিকদের সাথে শুভেচ্ছাবিনিময় করেন। বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতার এবং বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে সম্প্রচারিত হয় জন্মাষ্টমীর বিশেষ অনুষ্ঠানমালা।
এ দিকে জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ও ঢাকা মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির উদ্যোগে দুই দিনব্যাপী কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে গতকাল বেলা সাড়ে ৩টার দিকে ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। এবার শোভাযাত্রার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন এ শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন। শোভাযাত্রা ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির থেকে বের হয়ে পলাশীবাজার-জগন্নাথ হল-কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার-দোয়েল চত্বর-হাইকোর্ট-জাতীয় প্রেস ক্লাব-পুরানা পল্টন-শহীদ নূর হোসেন স্কয়ার-গোলাপ শাহ মাজার-গুলিস্তান মোড়-নবাবপুর রোড-রায়সাহেব বাজার প্রদক্ষিণ করে পুরান ঢাকার বাহাদুর শাহ পার্কে গিয়ে শেষ হয়।
ময়মনসিংহ অফিস জানায়, শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে ময়মনসিংহে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার সকালে নগরীর দুর্গাবাড়ি মন্দির প্রাঙ্গণে সর্বজনীন জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে রাখাল চন্দ্র সরকারের সভাপতিত্বে এবং পরিষদের সদস্য সচিব শংকর সাহার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনায় প্রধান অতিথি ছিলেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহম্মেদ। দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটু। আলোচনায় অংশ নেন বিভাগীয় কমিশনার খোন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান, ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি, জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান, পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন, আনন্দ মোহন সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ নারায়ণ চন্দ্র ভৌমিক, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফ হোসাইন, রামকৃষ্ণ আশ্রমের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী ভক্তি প্রদানন্দ প্রমুখ। সভা শেষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
ফরিদপুর সংবাদদাতা জানান, এ উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার সকালে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে শহরের গোয়ালচামট এলাকার শ্রীঅঙ্গন থেকে শোভাযাত্রা বের করা হয়। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এমপি শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন। এর আগে শ্রীমৎবন্ধু সেবক ব্রহ্মচারীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেনÑ জেলা প্রশাসক অতুল সরকার, পুলিশ সুপার মো: আলিমুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহা, পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুকেশ সাহা, অ্যাডভোকেট স্বপন পাল প্রমুখ। এ ছাড়া জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে আরো একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সভার আয়োজন করা হয়।
নোয়াখালী সংবাদদাতা জানান, গতকাল বেলা ১১টায় জেলা শহরের দেবালয় থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। এর উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মাইজদী বাজার শ্রী শ্রী রাম ঠাকুর আশ্রমে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি খীসা, নোয়াখালী পৌরসভার প্যানেল মেয়র রতন কৃষ্ণ পাল, পূজা উদযাপন পরিষদের নেতা বিনয় কিশোরসহ নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে দেবলায় মন্দির প্রাঙ্গণে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
জয়পুরহাট সংবাদদাতা জানান, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে সকালে কেন্দ্রীয় বারোয়ারী মন্দিরে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অ্যাডভোকেট সামছুল আলম দুদু এমপি। পরে হাতি, ঘোড়া এবং শ্রীকৃষ্ণের সাজসহ বর্ণাঢ্য র্যালি বের করা হয়। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকির হোসেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান রকেট, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট নৃপেন্দ্রনাথ মণ্ডল, ইউএনও মিল্টন চন্দ্র রায় র্যালিতে অংশ নেন।
গাজীপুর সংবাদদাতা জানান, জেলার বিভিন্ন মন্দিরে গীতাযজ্ঞ, পূজা অর্চনা ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা শহরের রাজবাড়ী ময়দানে শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি সুদেব চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট ওয়াজ উদ্দিন মিয়া, আব্দুল হাদী শামীম, গাজীপুর মহানগর পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি নারায়ন কুমার দাস ও সাধারণ সম্পাদক অরুন কুমার সাহা প্রমুখ। পরে বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা ভক্তদের নিয়ে বিশাল বর্ণাঢ্য র্যালি শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এ দিকে জেলার কালীগঞ্জ, কালিয়াকৈর, শ্রীপুর, কাপাসিয়াসহ বিভিন্ন উপজেলায় এ উপলক্ষে কর্মসূচি পালিত হয়।

 


আরো সংবাদ