১৮ অক্টোবর ২০১৯

৪৪ পরামর্শকের ভারে বিধ্বস্ত হবে ৩ রানওয়ে চার দশক আগে এসব রানওয়ে নির্মিত ; প্রকল্পের সম্ভাব্যতা সমীক্ষা হয়নি

-

ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তিন বিমানবন্দরের রানওয়ে সংস্কারে ৪৪ জন পরামর্শক প্রস্তাব করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত রানওয়ে পরামর্শকের ভারে বিধ্বস্ত হবে। এই পরামর্শকদের দিতে হবে মোট ২০ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। কাজ সুপারভিশনের জন্যই ৪৪ জন পরামর্শক দু’বছর নিয়োজিত থাকবেন। উন্নয়ন প্রকল্পের অর্থগুলো এভাবেই শৃঙ্খলাহীনভাবে খরচ করা হচ্ছে। আপত্তি জানিয়ে পরিকল্পনা কমিশনের ভৌত অবকাঠামো বিভাগ বলছে, কার্যক্রম সুপারভিশনে পরামর্শকের দায়িত্ব খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মোহাম্মদ হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রদান করা যেতে পারে।
বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) প্রস্তাবনার তথ্যানুযায়ী, ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের অভ্যন্তরীণ যশোর, সৈয়দপুর এবং শাহ মখদুম বিমানবন্দর রাজশাহীর রানওয়ে। চার দশক আগে ওই তিন বিমানবন্দরের রানওয়ে নির্মাণ করা হয়। অধিকসংখ্যক বিমানের রিটিটেড লোড বহন উপযোগী করে নির্মিত নয় এসব। যার ফলে কয়েক বছরেই রানওয়ের সারফেস ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই সব ক্ষতিগ্রস্ত রানওয়ে সংস্কারে ৪৪ জন বা এক হাজার ৫৩ জনমাস পরামর্শক নিয়োগ দেয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। গড়ে প্রতিটি বিমানবন্দরের জন্য ১৪ জন করে পরামর্শক লাগবে। পুরো প্রকল্পের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৮০ কোটি ৬৯ লাখ ৪৫ হাজার টাকা।
রানওয়ের বর্তমান চিত্র তুলে ধরে বলা হয়েছে, রানওয়ের কিছু কিছু স্থানের উপরিভাগস্থ বিটুমিনাস সারফেস থেকে নুড়ি পাথর উঠে আসাসহ ডিপ্রেসন ও ক্র্যাকের সৃষ্টি হচ্ছে। ওই তিন বিমানবন্দরে দিবারাত্রী নিরাপদ বিমান উড্ডয়ন ও অবতরণ নিশ্চিত করার জন্য রানওয়েতে অ্যাসফল্ট কনক্রিট ওভারলেকরণসহ নতুন রানওয়ে লাইটিং সিস্টেম স্থাপন করা হবে। আগামী ২ বছরে এই প্রকল্পটি বাস্তবায়নের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। প্রকল্পের আওতায় ৩ লাখ ১৬ হাজার ৬১২.০৫ বর্গমিটার রানওয়ে ও ট্যাক্সিওয়ে সারফেসে অ্যাসফল্ট ওভারলেকরণ ইত্যাদি।
পরিকল্পনা কমিশন বলছে, এই প্রকল্পে একই বিষয়ে একাধিক পরামর্শক রাখা হয়েছ। যা সঠিক হয়নি। এই সব ব্যয় ও পরামর্শকের সংখ্যা যৌক্তিক পর্যায়ে আনতে হবে। সমীক্ষা ছাড়াই ইনহাউস সমীক্ষার ওপর ভিত্তি করে প্রকল্পটি প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রকল্পের এই ধরনের সমীক্ষার ওপর ভিত্তি করে প্রকল্প নেয়া হলে নিড অ্যাসিসটেন্স ও ব্যয় প্রাক্কলনে ত্রুটি থেকে যায়।


আরো সংবাদ

জুয়াড়িদের জন্য ইসলামের হুঁশিয়ারি মৃত ব্যক্তির সাথে কথা বলে আদালতের নোটিশ জারি! পাকিস্তান বনাম ভারত যুদ্ধপ্রস্তুতি : কে কতটা এগিয়ে দেশী-বিদেশী পাইলটরা লেজার লাইট আতঙ্কে ‘গরু ছেড়ে মহিলাদের দিকে নজর দিন’,: মোদির প্রতি কোহিমা সুন্দরীর পরামর্শে তোলপাড় বিশাল বিমানবাহী রণতরী নির্মাণ চীনের, উদ্বেগে যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেকে শামীম ওসমানের প্রশ্ন : তোলারাম কলেজে কোথায় টর্চার সেল? জিপি ও রবিতে প্রশাসক নিয়োগ অনুমোদন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জাতীয় পতাকা অবমাননা মামলার শুনানি ৪ নভেম্বর ডিএনসিসির জরিপ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার দায়ে আটক ১ শিবচরে গণ-উন্নয়ন সমিতির কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

সকল