২২ নভেম্বর ২০১৯
জাবিতে পটচিত্রে ভিসির দুর্নীতির প্রতিবাদ

ইউজিসি ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে দুর্নীতির প্রমাণ দেবেন আন্দোলনকারীরা

জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসির পদত্যাগের দাবিতে সড়ক চিত্র : নয়া দিগন্ত -

দুর্নীতির অভিযোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। গতকাল শুক্রবার ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলনকারীরা দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরনো প্রশাসনিক ভবনের সামনে জড়ো হয়ে প্রতিবাদী ব্যঙ্গচিত্র অঙ্কন করেন।
ব্যঙ্গচিত্রে শিল্পীরা ‘দড়ি ধরে মারো টান, ফারজানা হোক খানখান’, ‘চোরের মায়ের বড় গলা, নিত্য খায় দুধ কলা’, ‘ভাঙবে শিকল খুলবে চোখ, ধ্বংস হবে ভণ্ড লোক’, ‘গুলিবিদ্ধ গান একদিন ঠিক কেড়ে নেবে স্বৈরাচারের প্রাণ’, ‘হাউ মাউ কাউ, প্রতিবাদের গন্ধ পাউ!’, ‘বন্ধ করো ক্যাম্পাস, বন্ধ করো হল, ভয় পাবে সব বেয়াদবের দল’ ইত্যাদি স্লোগান চিত্রের মাধ্যমে তুলে ধরেন।
পটচিত্র অঙ্কনে অংশ নেয়া শিল্পীরা জানান, ‘আমরা এত দিন যা মুখে বলে আসছিলাম তা রঙ ও তুলির মাধ্যমে প্রকাশ করছি’। চিত্রশিল্পী ও জাবি চারুকলা বিভাগের শিক্ষার্থী শান্ত জানান, ‘রঙের মধ্য দিয়ে ফুটে উঠবে আমাদের অব্যক্ত কথাগুলো। আমাদের চলমান আন্দোলনের ঘটনাগুলো চিত্রের মাধ্যমে প্রকাশ পাবে। এটা অনাচার ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে একটি শৈল্পিক প্রতিবাদ।’ চিত্রশিল্পী তানজিদা শহিদ ভিসির দুর্নীতির বিষয়ে বলেন, ‘আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিভাবক ভিসি চরিত্রকে চিত্রের মাধ্যমে তুলে ধরেছি। তার দুর্নীতি, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, নারী নিপীড়কদের প্রশ্রয়, শিক্ষাকে ব্যবসা করাকে অঙ্কিত করা হয়েছে।’
আন্দোলনকারীরা আরো বলেন, ‘আমরা কয়েক দিন আগে ভিসির দুর্নীতির প্রতিবাদে ৩০ গজ দীর্ঘ পটচিত্র অঙ্কন করেছি। চিত্রটি ট্রান্সপোর্টে রাখা হলে ভিসিপন্থী শিক্ষক-কর্মকতারা সেটি ছিঁড়ে ফেলে। আমরা আজ তার প্রতিবাদে দ্বিগুণ দীর্ঘ ৬০ গজ লম্বা পটচিত্র অঙ্কন করেছি।’
এ দিকে সরকার ও মন্ত্রণালয় থেকে ভিসির দুর্নীতির প্রমাণ চাওয়ার পর এবার আন্দোলনকারী শিক্ষকরা ভিসি ফারজানা ইসলামের দুর্নীতির তথ্যপ্রমাণ শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসিতে জমা দেবেন বলে জানিয়েছে। আন্দোলনের সংগঠক অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনু বলেন, ‘শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসিকে ভিসির দুর্নীতির তথ্য-উপাত্ত আজ (শুক্রবার) রাতে দেয়া হবে। আমরা সকাল থেকেই অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছি। দুর্নীতিবাজ ভিসির অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবো।’
আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক রাকিবুল রনি বলেন, ‘হামলা-মামলা ও হুমকিকে অগ্রাহ্য করে নৈতিক স্খলন ও দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত ভিসিকে অপসারণ এবং দুর্নীতিতে জড়িত সবার রাষ্ট্রীয় আইনে বিচার নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এই আন্দোলন চলবে।’
সন্ধ্যায় আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা কলা ও মানবিকী অনুষদ ভবনে পরবর্তী আন্দোলনের বিষয়ে আলোচনায় বসছেন। আলোচনায় সরকারের কাছে ভিসির দুর্নীতির তথ্যপ্রমাণ উপস্থাপন ও পরবর্তী কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা করার কথা রয়েছে।


আরো সংবাদ

দেশে কিছু ঘটলেই তার ওপর ভর করে বিএনপি : কাদের সাউথ এশিয়ান ল’ ইয়ার্স ফোরামের সুপ্রিম কোর্ট চাপ্টারের পরিচিতি সভা শ্রমিক ইউনিয়ন চাঁদা তুলে আঙুল ফুলে কলাগাছ ইলিয়াস কাঞ্চনের বিরুদ্ধে বিদ্বেষমূলক প্রচারণায় আসকের নিন্দা সোনারগাঁওয়ে শুটারগানসহ ১ ব্যক্তি আটক রাজধানীতে যুবলীগ নেতাকে তুলে নেয়ার অভিযোগ যৌন হয়রানির অভিযোগে টেনিস ফেডারেশনের সেক্রেটারি বহিষ্কার খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য প্রয়োজন ‘ডু অর ডাই’ আন্দোলন : গয়েশ্বর রায় পূবাইলে তারেক রহমানের জন্মদিন উদযাপিত চার জেলার ৮ কারখানাকে জরিমানা পরিবেশ অধিদফতরের দি স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন ঢাকার ২০১৯ সালের বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত

সকল