২২ নভেম্বর ২০১৯

লোকমান ভূঁইয়ার ৭ দিনের রিমান্ড

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক লোকমান হোসেন ভূঁইয়ার সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের সহকারী পরিচালক সাইফুল ইসলাম তাকে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন।

আসামিপক্ষে আইনজীবী রিমান্ড বাতিলের করে জামিনের আবেদন করেন। ঢাকার সিনিয়র স্পেশাল জজ কে এম ইমরুল কায়েশ উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে জামিন আবেদন নাকচ করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ।

আসামি বিরুদ্ধে মামরার অভিযোগে বলা হয়, ৬৪ লাখ ২০ হাজার টাকার স্থাবর সম্পত্তির হিসাব আয়কর নথিতে দেখালেও অনুসন্ধানে তার ‘সুনির্দিষ্ট কোনো বৈধ আয়ের উৎস’ পাওয়া যায়নি। লোকমান হোসেন ভূঁইয়া তার আয়কর নথিতে ৭৩ লাখ ৭০ হাজার ৬৬৪ টাকার অস্থাবর সম্পদ ছাড়াও নিজ নামে ও তার স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গে যৌথভাবে আরো ২ কোটি ৯৬ লাখ ২৮ হাজার ৯৮৪ টাকার অস্থাবর সম্পদ অর্জন করেছেন।

কিন্তু তা তাদের আয়কর নথিতে প্রদর্শন করেননি। সেকারণে গত ২৭ অক্টোবর দুদকের সহকারী পরিচালক সাইফুল ইসলাম লোকমানের বিরুদ্ধে ৪ কোটি ৩৪ লাখ ১৯ হাজার ৬৪৮ টাকা অবৈধভাবে অর্জনের অভিযোগে মামলা করেন।

উল্লেখ্য, ১৮ সেপ্টেম্বর রাজধানীর বিভিন্ন ক্লাবে ক্যাসিনো বিরোধী অভিযান শুরু হয়। এর ধারাবাহিকতায় মতিঝিল এলাকায় মোহামেডান ক্লাবে অভিযান চালায় র‌্যাব। ২৬ সেপ্টেম্বর তেজগাঁওয়ের মনিপুরীপাড়ার বাসা থেকে লোকমানকে কয়েক বোতল মদসহ গ্রেফতার করে র‌্যাব। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা করা হয়।

গত ২৭ ও ৩০ সেপ্টেম্বর এবং ৩ অক্টোবর মাদক মামলায় দুই দিন করে মোট ছয় দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে গত ৬ অক্টোবর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এরপর থেকে তিনি কারাগারেই আছেন।


আরো সংবাদ