১৮ অক্টোবর ২০১৯

বেতন ও ভাতা বাড়ানো

-

প্রতিটি দ্রব্যের দাম বেড়েছে। তাই সরকারি কর্মকর্তা বিশেষ করে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধিসহ এগারো নম্বর গ্রেডে আনার প্রয়োজন বাড়ছে। অর্থাৎ প্রারম্ভিক বেতন ত্রিশ কিংবা পঁয়ত্রিশ হাজার টাকা দেয়া উচিত। এ জন্য আবেদন জানাচ্ছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী, এমপি ও সচিবদের কাছে। একজন ঊর্ধ্বতন আমলা প্রাইমারি স্কুলের কিছু শিক্ষকের ‘গোপন কথা’ ফাঁস করে দিয়ে নিজেকে হয়তো ‘দুধে ধোয়া তুলসী’ পাতা মনে করছেন। আসলে বাস্তবতা আহামরি কিছু নয়। এর অন্যতম কারণ, ভূরিভূরি শিক্ষার্থী প্রাইমারি ও হাইস্কুল পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে পাস করলেও অনভ্যাসের কারণে কিংবা সঙ্গদোষে বা অহমিকার কবলে পড়ে অঙ্কুরেই বিনষ্ট হয়ে যায়। প্রবাদ আছেÑ ‘অনভ্যাসে বিদ্যা হ্রাস।’ মরিচায় ধরা জিনিস দিয়ে যেমন ভালো কিছু করা যায় না, তেমনি ওই অল্প বিদ্যা দিয়ে বেশি কিছু করা যায় না। অতীতে শিক্ষিত পণ্ডিতদের অনেকে টেবিলে পা তুলে ঘুমাতেন, আজকের দিনে তা কল্পনাও করা যায় না। আজকের ডিগ্রিধারী শিক্ষকেরা অনেক সতর্ক। মোটকথা, তারা মোটা অঙ্কের বেতন আশা করতে পারেন। আশা করি, কর্তৃপক্ষ ভেবে দেখবেন।
মো: রফিকুল ইসলাম
লাকসাম, কুমিল্লা


আরো সংবাদ

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জাতীয় পতাকা অবমাননা মামলার শুনানি ৪ নভেম্বর ডিএনসিসির জরিপ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণার দায়ে আটক ১ শিবচরে গণ-উন্নয়ন সমিতির কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ জবি ছাত্র ইউনিয়নের নেতৃত্বে মুত্তাকী-জাহিন তোলারাম কলেজে কোথায় টর্চার সেল? ‘দ্বীনকে বিজয়ী করতে সর্বক্ষেত্রে যোগ্যতার স্বাক্ষর রাখতে হবে’ বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি মোজাফফরের জামিন বাতিল জয়নুল আবেদীন, মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ তিনজনের জামিন শেখ রাসেলের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ইউল্যাব স্কুলে আলোচনা জহুর-তনয় আশফাকের স্মরণসভাসিএনসির বিচারককে প্রত্যাহার দাবি আইনজীবী ফোরাম ও বার সম্পাদকের

সকল