২৪ অক্টোবর ২০১৯

তেলক্ষেত্রে হামলা : ব্যর্থতার দায়ে বাড়ছে সৌদি যুবরাজের সমালোচনা

সৌদি আরবের যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমান - সংগৃহীত

সবচেয়ে বড় তেলক্ষেত্রে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর সৌদি আরবের যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের সমালোচনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তার নেতৃত্ব নিয়ে ক্ষমতাসীন রাজপরিবারের কিছু সদস্য ও ব্যবসায়ী বিশেষজ্ঞ হতাশা প্রকাশ করেছেন।  বিশেষ করে সৌদি আরবের তেল শিল্পের প্রাণকেন্দ্রে গত মাসের নজিরবিহীন হামলার পর দেশটির প্রতিরক্ষায় যুবরাজের সক্ষমতা নিয়ে উদ্বেগ বেড়েছে।

গত মাসে সৌদি আরবের দু’টি তেলক্ষেত্রে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইয়েমেনের হাউছিরা। এতে মারাত্মক ক্ষতি হয় ওই দু’টি স্থাপনার। এর ফলে বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেল রফতানিকারক সৌদি আরবের তেল রফতানির ওপর বড় প্রভাব পড়ে। এ অবস্থায় ক্ষমতাসীন রাজপরিবারের বিভিন্ন শাখায় বিভিন্ন প্রভাবশালীর মধ্যে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে যুবরাজের প্রতিরক্ষা ও নেতৃত্ব দেয়া নিয়ে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সূত্রগুলো বলেছেন, অভিজাত একটি মহলের কাছে ওই হামলায় অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

তারা বিশ্বাস করেন, যুবরাজ ক্ষমতাকে খুব বেশি শক্ত করে আঁকড়ে ধরেছেন। তাদের কেউ কেউ বলছেন, যারা মনে করেন ইরানের বিরুদ্ধে অতিমাত্রায় আগ্রাসী অবস্থান নিয়েছেন যুবরাজ মুহাম্মদ, তাদের মধ্যে তার বিরুদ্ধে সমালোচনা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। রাজপরিবারের সাথে সম্পর্ক আছে এমন একজন সৌদি অভিজাত সদস্য ওই সূত্রের একজন। তিনি বলেছেন, ক্রাউন প্রিন্সের নেতৃত্ব নিয়ে রয়েছে ব্যাপক অসন্তোষ। তার প্রশ্ন- কেন সরকার ওই হামলা আগেভাগে চিহ্নিত করতে পারল না? এই সূত্রটি বলেছেন, অভিজাত শ্রেণীর মধ্যে কেউ কেউ যুবরাজের ওপর আস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। অন্য চারটি সূত্র ও একজন সিনিয়র কূটনীতিকের মুখেও একই রকম কথা শোনা গেছে। সূত্র : আলজাজিরা ও রয়টার্স।


আরো সংবাদ