১৫ নভেম্বর ২০১৯

সিরিয়ায় তেলসমৃদ্ধ অঞ্চলে নতুন সেনাঘাঁটি গড়ছে যুক্তরাষ্ট্র

সিরিয়ার তেলসমৃদ্ধ দেইর আল জউর এলাকা এবং আল সুর অঞ্চলের কাছে দুটি নতুন সামরিক ঘাঁটি নির্মাণ শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র । স্থানীয় একটি সূত্রের বরাত দিয়ে আনাদোলু এজেন্সি এ খবর জানিয়েছে। আনাদোলুর ধারণ করা একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, অনেক নির্মাণ সরঞ্জাম সেখানে নেয়া হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র ওই অঞ্চলে ২৫০ থেকে ৩০০ অতিরিক্ত সেনা, সাঁজোয়া যান, ভারী অস্ত্র এবং গোলাবারুদ পাঠিয়েছে বলেও জানা গেছে।

সোমবার স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, মার্কিন সেনারা উত্তর সিরিয়ার তেলক্ষেত্রের আশপাশে তাদের সামরিক তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে, যা বর্তমানে পিকেকে গোষ্ঠীর সিরীয় শাখা, পিপলস প্রটেকশন ইউনিটের (ওয়াইপিজি) অধীনে রয়েছে।

সশস্ত্র যানবাহন, পিক-আপ ট্রাক ও মিনিবাসসহ একটি বহরকে তুরস্কের সীমান্ত থেকে ৬ কিলোমিটার (৩.৭ মাইল) দূরে কাহতানিয়াহ শহর ও রুমাইলান জেলার চারপাশের ৪০ কিলোমিটার লাইনে সামরিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে দেখা গেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তেলসমৃদ্ধ অঞ্চলের কাছাকাছি নতুন সামরিক চেকপয়েন্ট গড়ে তোলার মার্কিন পরিকল্পনা অনুযায়ী চেকপয়েন্টগুলো স্থাপনের জন্য ওই বহর পুনরায় যোগাযোগ কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

তুরস্কের উত্তর সিরিয়ায় সন্ত্রাসবাদবিরোধী অভিযানের কারণে মার্কিন সেনাবাহিনী উত্তর-পূর্ব সিরিয়ার আল-হাসাকাহ প্রদেশে টহল কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছিল কিন্তু নভেম্বর মাসে তা আবার চালু করে। রুমাইলানে পেন্টাগনের একটি বিমানঘাঁটি আছে, যেখানে বর্তমানে শতাধিক সেনা মোতায়েন রয়েছে। সম্প্রতি রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেন, মার্কিন সরকার চুরি করে সিরিয়ার তেল বাইরে পাচার করে দিচ্ছে। সূত্র : ডেইলি সাবাহ।


আরো সংবাদ