১০ ডিসেম্বর ২০১৯

দখলকৃত পশ্চিম তীরের ইহুদি বসতিগুলোকে স্বীকৃতি দিল যুক্তরাষ্ট্র

-

ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে ইসরাইলি দখলদারিত্বকে স্বীকৃতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ওয়াশিংটন মনে করছে, ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে স্থাপিত ইসরাইলি বসতিগুলো ‘আন্তর্জাতিক আইনের বিরুদ্ধে নয়’।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, আইনি বিষয়গুলো সতর্কভাবে নিরীক্ষা করে (মার্কিন) প্রশাসন এ ব্যাপারে সম্মত হয়েছে যে.. পশ্চিমতীরে ইসরাইলের বেসামরিক বসতিগুলো আন্তর্জাতিক আইনের সাথে অসামাঞ্জস্যপূর্ণ নয়।

তিনি বলেন, ১৯৭৮ সালের মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পশ্চিমতীরে ইহুদি বসতিকে আন্তর্জাতিক আইনের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ নয় বলে যে ঘোষণা দিয়েছিল তা আর মেনে চলবে না ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন।

এই ঘোষণার মাধ্যমে মূলত ইসরাইলের এই অবৈধ বসতিগুলোকে স্বীকৃতি দিল যুক্তরাষ্ট্র। ১৯৬৭ সালে মধ্যপ্রাচ্য যুদ্ধের সময় ইসরাইল ফিলিস্তিনের এই অঞ্চলে জোরপূর্বক দখলে নিয়ে নেয় এবং সেখানে বসতিস্থাপন করে। এই অঞ্চল নিয়ে ইসরাইল এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মধ্যে বিরোধপূর্ণ সম্পর্ক সৃষ্টি হয়। বিষয়টি জেনেভা কনভেনশনের বিরুদ্ধে তাই জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদ এই বসতিকে অবৈধ মনে করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাও পশ্চিম তীরে ইসরাইলের এই বসতি স্থাপনকে স্বীকৃতি দেননি। কিন্তু তার পরে ক্ষমতায় আসা ডোনাল্ড ট্রাম্প সেই নীতির পরিবর্তন ঘটালেন।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের এই ঘোষণার নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিনের রাজনৈতিক দল, প্রশাসন, সমাজকর্মী ও মানবাধিকার সংগঠনগুলো। তারা বলছে, এর ফলে ইসরাইলি দখলদারিত্ব আরো বেড়ে যাবে।


আরো সংবাদ